দুই বছর ধরেই শহরে মিলছে ছিন্ন মাথা, রহস্য এখনও অজানা

|

ঠিক এই স্থানেই বাকারির ছিন্ন মাথা পড়ে ছিলো

দুই বছর ধরে আফ্রিকার দেশ মালির দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রত্যন্ত শহর ফানায় পাওয়া যাচ্ছে মানুষের মাথা। সেই ২০১৮ সাল থেকে এই শহরে রহস্যজনকভাবে একই কায়দায় মানুষ খুন হচ্ছে।

সবশেষ খুন হয় বাকারি নামে এক সাবেক সেনাসদস্য। তার ভাই বাউবাউ সাঙ্গারে ফাকা একটি জায়গা দেখিয়ে বলেন, ওখানেই নাকি পাওয়া গিয়েছে তার ভাইয়ের মাথা। পুলিশ জানায়, ১০ জুন সকালে ঠিক ওই জায়গাতেই তাঁর ভাই বাকারির ছিন্ন মাথা পড়েছিল। আর ঠিক তার পাশেই ছিল ধড়।

তবে ফানা শহরে কে কেন কীভাবে এমন করে মানুষ খুন করছে, তা এখন পর্যন্ত রহস্য হয়েই আছে। সাঙ্গারে তার ভাইয়ের খণ্ডবিখণ্ড লাশ পাওয়ার ৪০ মিনিটের মাথায় ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে ঘিরে রাখে।

ফানায় প্রায় ৩৬ হাজার মানুষের বসবাস। এদিকে দীর্ঘদিনের এমন রহস্যময় খুনে শহরের বাসিন্দাদের মধ্যে ভীতি ছড়িয়ে পড়েছে। তারা সবসময় একটা অনিশ্চয়তায় দিন কাটাচ্ছে।

বাকারির মৃত্যুর ঘটনা অনুসন্ধানে গিয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে একটি লোহার রড পায়। বাড়ির পেছনের দিকে পায় রক্তের ফোঁটা। মোটরসাইকেলের টায়ারের চিহ্নও দেখা যায় সেখানে। এই হত্যাকাণ্ডের ধরণ দেখে পুলিশ বলছে, প্রায় একই কায়দায় খুনগুলো হচ্ছে। সম্ভবত ছুরি বা কুড়াল দিয়ে ধর থেকে মাথা ছিন্ন করা হয়। লাশগুলো সাধারণত সকালের দিকেই পাওয়া যায়। লাশের পাশে রক্ত পাওয়া যায় না।

ধারণা করা হচ্ছে খুনিরা সম্ভবত খুন করে রক্ত সংগ্রহ করে। তবে এর পেছনে কোন শক্ত যুক্তি তারা দাড় করাতে পারেনি। ঠিক কী কারণে খুনগুলো করা হচ্ছে, এর কোনো অকাট্য প্রমাণ তাদের কাছে নেই। এ নিয়ে নানা পদক্ষেপ নেওয়ার পরও শহরটিতে একের পর এক একই কায়দায় খুন হয়েই চলেছে।









Leave a reply