স্বামীকে তালাক দিয়ে সৎ ছেলেকে বিয়ে করলো রাশিয়ান নারী

|

ছবি- ডেইলি মেইল

রাশিয়ার ক্রাসোন্দাতে ঘটলো এক অসম প্রেমের গল্প। স্বামীকে তালাক দিয়ে সৎ ছেলের সঙ্গে ঘর পেতেছেন এক নারী। এমনই খবর প্রকাশ করেছে ডেইলি মেইল।

মারিনা ব্লামাশেভা নামে ওই নারী রাশিয়ার ক্রাসোন্দার ক্রাই নামক এলাকায় থাকেন। ওই এলাকায় বেশ জনপ্রিয় ওই নারীর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বহু ফলোয়ার রয়েছে। জানা যায়, ৩৫ বছর বয়সী মারিনা সম্পর্কে নিজের থেকে ১৫ বছরের ছোট ভ্লাদিমিরের সৎ মা।

মারিনাকে প্রায় ১০ বছর আগে বিয়ে করেন ভ্লাদিমিরের বাবা। কিন্তু দাম্পত্য জীবনে তারা ছিলেন বেশ অসুখী। কিন্তু একটা সময়ে মারিনা বুঝতে পারেন তিনি আসলে ভালোবেসেছেন সৎ ছেলে ভ্লাদিমিরকে। তারপর বাবার অজান্তেই শুরু হয়ে যায় সৎ মা এবং ছেলের প্রেম।

একে অপরের সঙ্গে শারীরিক-মানসিক সবদিক থেকেই জড়িয়ে যান। নিজের স্বামীকে ডিভোর্স দিয়ে গত সপ্তাহেই সৎ ছেলেকে বিয়ে করেন মারিনা। রেজিস্ট্রি অফিসে বিয়ে করার পর রীতিমতো বিয়ের পোশাকে সেজে রিসেপশনেরও আয়োজন করেছেন মারিনা এবং তার ১৫ বছরের ছোট ভ্লাদিমির।

এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মারিনা লিখছেন, ‘আমি আমার সত্যিকারের জীবনসঙ্গীকে খুঁজে পেয়েছি। ইচ্ছে ছিল এ বছরের শুরুর দিকেই বিয়েটা সেরে ফেলব। কিন্তু লকডাউনের জন্য সেটা হলো না। গত সপ্তাহেই আমরা বিয়ে করেছি।’ কিন্তু অবাক করা বিষয় হলো মারিনা ও ভ্লাদিমিরের এই বিয়ে মারিনার আগের স্বামী তথা ভ্লাদিমিরের বাবাও মেনে নিয়েছেন।









Leave a reply