পর্তুগালে সামাজিক দূরত্ব মেনে বাংলাদেশিদের ঈদ উদযাপন

|

পর্তুগাল প্রতিনিধি

করোনাভাইরাসের কারণে পর্তুগালে ঈদুল ফিতরের মতই ঈদুল-আজহাও অনেকটা সাদামাটাভাবে উদযাপন করেছেন বাংলাদেশিসহ বিভিন্ন মুসলিম প্রবাসীরা। তবে সামাজিক দূরত্ব মেনে ও মাস্ক ব্যবহার করে বিভিন্ন মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় হয়েছে।

সামাজিক দূরত্ব মেনে পর্তুগালের সেন্ট্রাল মসজিদে সকাল ৭ টায় ও ৮ টায় দুটি ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। তবে আগের মত পর্তুগালের সর্ব বৃহৎ ঈদের জামাত বাংলাদেশি অধ্যুষিত লিসবনের মাতৃমনিজ পার্কের খোলা মাঠে অনুষ্ঠিত হয়নি। কিছু সংখ্যক মুসল্লি নিয়ে নামাজ অনুষ্ঠিত হয় লিসবনের অডিভিলাসে।

পর্তুগালের সর্ব বৃহৎ ঈদের জামাত বাংলাদেশি অধ্যুষিত লিসবনের মাতৃমনিজ পার্কের মাঠে অনুষ্ঠিত না হওয়ায় বেশিরভাগ বাংলাদেশি বিভিন্ন মসজিদে নামাজ আদায় করেন। সেই সঙ্গে করোনা মহামারি সঙ্কট ও পর্তুগালের পরবর্তী অর্থনৈতিক বিপর্যয়ে বেশিরভাগ প্রবাসী অর্থনৈতিক ও কর্মহীন হয়ে পড়ায় অন্যান্য বছরের মতো এবারের ঈদুল আযহায় ব্যস্ততাও দেখা যায়নি বাংলাদেশি অধ্যুষিত দোকানগুলোতে।

এদিকে পর্তুগালের বন্দর নগরী ও বাণিজ্যিক শহর পোর্তোর বাঙালি অধ্যুষিত রুয়া দে লউরেইরোর হযরত হামজা (র.) মসজিদে সকাল সাড়ে ৭টা ও সাড়ে ৮টায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সরকারের অনুমতি নিয়ে ঈদুল আজহার দুইটি জামাত অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ কমিনিটি পোর্তোর নেতৃবৃন্দসহ ঈদের জামাতে পোর্তোয় বসবাসরত বিভিন্ন শ্রেণি পেশার প্রবাসী বাংলাদেশিরা অংশ নেন।

পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে পর্তুগালের বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত রুহুল আলম সিদ্দিকী প্রবাসী বাংলাদেশি ও দেশে অবস্থিত প্রবাসীদের পরিবারের সদস্যসহ সবাইকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।









Leave a reply