সুদানে ভয়াবহ বন্যায় নিহত কমপক্ষে ৬৫

|

টানা বর্ষণে সৃষ্ট ভয়াবহ বন্যায় উত্তর আফ্রিকার দেশ সুদানে কমপক্ষে ৬৫ জনের প্রাণহানি হয়েছে। বন্যার তোড়ে ভেসে গেছে ১৪ হাজার বাড়িঘর। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে আরও ৩০ হাজারের বেশি। খবর আলজাজিরার।

খবরে বলা হয়, এছাড়া বহু গবাদি পশু মারা গেছে। দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় রোববার এক বিবৃতিতে এসব তথ্য জানিয়েছে। টানা প্রবল বর্ষণে সৃষ্ট বন্যায় পূর্বাঞ্চলীয় গাদারিফ প্রদেশের দুটি স্বর্ণখনিতে আটকা পড়েছেন প্রায় দুই হাজার শ্রমিক।

নীল নদ অববাহিকায় অবস্থিত সুদানে প্রতিবছর জুন মাস থেকে বর্ষাকাল শুরু হয়ে তা অক্টোবর পর্যন্ত স্থায়ী হয়। তাছাড়া, বন্যায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে দেশটির রাজধানী অঞ্চল খার্তুম, ব্লু নীল এবং রিভার নীল স্টেট। বন্যা দেখা দিয়েছে গেজিরা, গাদারিফ, ওয়েস্ট খার্তুম এবং সাউথ দারফুর অঞ্চলেও।

সুদানে মানবিক সহায়তা সমন্বয়কারী জাতিসংঘের কার্যালয় থেকে দেয়া হিসাবে জানানো হয়েছে, এবারের বন্যার কারণে সুদানে দেশজুড়ে কমপক্ষে ১৪টি স্কুল ধসে পড়েছে। এছাড়া দূষিত নয়তো অকার্যকর হয়ে পড়েছে দেশটির এক হাজার ৬০০ এর বেশি বিশুদ্ধ পানির উৎস।

সেপ্টেম্বরেও দেশের বেশিরভাগ এলাকায় ভারী বৃষ্টিপাত হতে পারে বলে আবহাওয়ার পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে। দুর্বল অবকাঠামো এবং সরকারি অব্যবস্থাপনার কারণে সুদানে প্রতিবছর বন্যায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ও প্রাণহানি হয়।

ইউএইস/









Leave a reply