গাজীপুরে ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে আট মাস ধরে ধর্ষণ

|

গাজীপুর প্রতিনিধি:

গাজীপুরের কাপাসিয়ায় বন্ধুর স্ত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে গোপনে ভিডিও ধারণ করেন উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের দলিল লেখক রাসেল মোল্লা। আর ওই ভিডিও ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে রাসেল মোল্লা ও তার আরও দুই বন্ধু ওই নারীকে আট মাস ধরে পালাক্রমে ধর্ষণ করে আসছিল।

এ ঘটনায় ওই নারী বাদী হয়ে তিনজনের নাম উল্লেখ করে বুধবার কাপাসিয়া থানায় মামলা করেছেন।
অভিযুক্তরা হলেন, সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের দলিল লেখক মাহফুজুর রহমান রাসেল মোল্লা (৪০), ছাত্রদলের সাবেক সদস্য গ্যাস ব্যবসায়ী খাইরুল ইসলাম সবুজ (৩৮) ও সাব- রেজিস্ট্রি অফিসের দলিল লেখক জাকির হোসেন সোহেল (৩৯)। ঘটনাটি জানাজানি হলে কাপাসিয়া উপজেলা শহরজুড়ে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, দলিল লেখক মাহফুজুর রহমান রাসেল মোল্লার সঙ্গে তার এক বন্ধু দুই বছর ধরে শিক্ষানবিশ সহকারী হিসেবে কাজ করছেন। সেই সুবাদে গত বছর ৩ ডিসেম্বর রাতে রাসেল মোল্লা সুযোগ বুঝে ওই সহকারীর বাড়িতে যান। সহকারী বাড়িতে না থাকায় তার স্ত্রীকে রাসেল জোরপূর্বক ধর্ষণ করে এবং কৌশলে ভিডিও ধারণ করে রাখেন। পরে ধারণকৃত ভিডিও দেখিয়ে ব্ল্যাকমেইল করে অপর দুই বন্ধুর সঙ্গে গৃহবধূকে ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় যৌনমিলনে বাধ্য করেন। তাদের কথামতো না চললে আসামিরা ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেন।

কাপাসিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম জানান, ওই গৃহবধূ বাদী হয়েছে ৩ জনের নাম
উল্লেখ করে মামলা দায়ের করেছেন। মামলার পর থেকে অভিযুক্তরা পলাতক রয়েছে। তাদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান চলছে বলেও জানান ওসি।









Leave a reply