আলোচনার জন্য মেসির বাড়িতেই গিয়েছিলেন কোম্যান

|

অনেকেই আন্দাজ করে নিয়েছিলেন কোচের সঙ্গে মেসির সম্পর্কটা শুরুর আগেই শেষ হয়ে যাচ্ছে। তবে এই বিতর্ক মোটামুটি থেমে যাওয়ার পর এবার মুখ খুলেছেন রোনাল্ড কোম্যান।

কোম্যান জানিয়েছেন, বিশ্বসেরা ফুটবলারকে তিনি কতটা সম্মান করেছেন সে সময় তা তিনিই জানেন। এমনকি অন্যদের সঙ্গে ফোনকলে কথা বললেও, লিওর সঙ্গে কথা বলতে তার বাড়িতে ছুটে গিয়েছিলেন স্বয়ং কোচ।

কারণ নেট দুনিয়ায় একটা খবর বেশ সরব হয় আর সেটা হলো মেসির ক্লাব ছাড়তে চাওয়ার বড় একটি কারণ নাকি নতুন কোচ রোনাল্ড কোম্যান! এসেই তিনি যেভাবে আর্জেন্টাইন তারকাকে বলেছিলেন, এই ক্লাবে আগের মতো সুযোগ-সুবিধা পাবেন না তিনি।

আর এর পরপরই মৌসুম শুরুর আগে ক্লাব ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন মেসি। বার্সায় তার ভবিষ্যৎ যখন সুতোয় ঝুলছিল তখনই তার বাসায় মুখোমুখি আলোচনা করতে ছুটে যান বলে জানিয়েছেন কোম্যান।

গণমাধ্যমে দেয়া সাক্ষাৎকারে কোম্যান জানান, কোচ হিসেবে চুক্তি স্বাক্ষরের পরপরই তিনি লিওর সঙ্গে যোগাযোগ করেন। তিনি মেসির বাড়িতে যান এবং ক্লাবে তার ভবিষ্যৎ নিয়ে আলোচনা করেন। ক্লাবের ওপর তার ক্ষোভ ছিল পুরোপুরি পরিষ্কার। যাই হোক, সবকিছু ভালোমতোই শেষ হলো এবং যা প্রত্যাশা করেছিলাম, সবই সে করেছে।

ক্লাবের সতীর্থ সুয়ারেজের বিদায় নিয়েও তীব্র সমালোচনা করেন মেসি। বলেন, উরুগুইয়ান তারকাকে ঘাড় ধাক্কা দিয়ে বের করে দেয়া হয়েছে, যেটা তার প্রাপ্য নয়। এ জন্যও অনেকে কোম্যানকে দায়ী করেন। তবে নিজের অবস্থান পরিষ্কার করেছেন এ কোচ।

ন্যু ক্যাম্প থেকে মেসির বাড়ি মাত্র ১২ মাইল দূরে। যেখানে আছে নিজের একান্ত ফুটবল পিচ, সুইমিং পুল, ইনডোর মাঠ।। সেখানেই তার সঙ্গে আলোচনায় বসেন কোম্যান। এবং সেই আলোচনার ফসলই নাকি মেসির ক্লাব না ছাড়ার সিদ্ধান্ত।









Leave a reply