নাটোরে ব্যবসায়ী হত্যার ঘটনায় মূল অভিযুক্ত গ্রেফতার

|

স্টাফ রিপোর্টার, নাটোর:

নাটোরের নলডাঙ্গায় সার ব্যবসায়ী অরুণ শর্মাকে হত্যা করে ৩ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় আলামিন নামের এক কলেজ ছাত্রকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রোববার দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। জজ আদালতের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মেহেদী হাসান তার ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি রেকর্ড শেষে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

নলডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম জানান, ২১ নভেম্বর রাত ৮টার দিকে সার ব্যবসায়ী অরুণ শর্মা নলডাঙ্গা বাজারে তার দোকান বন্ধ করে তিন লাখ টাকাসহ সোনাপাতিল গ্রামে ফিরছিলেন। পথে তালতলা এলাকায় আলামিন লোহার রড দিয়ে মাথায় আঘাত করলে অরুণ মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। এ সময় অরুণের কাছে থাকা টাকা নিয়ে পালিয়ে যায় আলামিন।

স্থানীয় লোকজন আহত অরুণকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় ক্লিনিক ও পরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। এ ঘটনায় ব্যবসায়ী অরুণের স্ত্রী শামলী শর্মা বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। এরপর পুলিশ তৎপরতা শুরু করে তথ্য প্রযুক্তি ও গোয়েন্দা তথ্যেও ভিত্তিতে হত্যায় একমাত্র অভিযুক্ত হিসাবে আলামিনের সংশ্লিষ্টতা খুঁজে পায়। পরে অভিযান চালিয়ে শুক্রবার রাতে রাজশাহীর এক ছাত্রাবাস থেকে আলামিনকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় আলামিনের কাছে রাখা ছিনতাইয়ের ২ লাখ ১৩ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত আলামিন নলডাঙ্গা উপজেলার সোনাপাতিল গ্রামের সাকের আলীর ছেলে। সে রাজশাহী সিটি কলেজের অনার্স প্রথম বর্ষের ছাত্র।

আদালত সূত্রে জানা যায়, মোবাইলে জুয়া খেলার নেশা ছিল আলামিনের। এছাড়া সে তার প্রেমিকার কাছ থেকে দফায় দফায় টাকা ধার নিয়েছিল। ধারের টাকা পরিশোধ ও জুয়ার নেশায় মানসিক অস্থিরতা থেকে সে ছিনতাইয়ের পরিকল্পনা করে। সম্প্রতি বাড়িতে এসে সারের বড় ব্যবসায়ী অরুণ শর্মার প্রতি নজর রাখে আলামিন। সুযোগ মতো গত ২১ তারিখ রাতে ব্যবসায়ী অরুণ শর্মার মাথায় লোহার রড দিয়ে আঘাত করে টাকা ছিনতাই করে সে।

ইউএইচ/









Leave a reply