মুক্তিযোদ্ধাকে কুপিয়ে আহত: পটুয়াখালীর চেয়ারম্যান ও স্ত্রীসহ গ্রেফতার ৫

|

পটুয়াখালী প্রতিনিধি:

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় দাবিকৃত চাঁদা না পেয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহ আলম মিয়াকে কুপিয়ে আহত করার ঘটনায় টীয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মশিউর রহমান শিমু মীর এবং তার স্ত্রী এলিজা বেগমসহ তার বাহিনীর পাঁচ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার ভোরে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে আহত মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী আকলিমা বেগম বাদি হয়ে কলাপাড়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ২৮ তারিখ ৩০নভেম্বর ২০২০ইং।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কলাপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, অপর আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত আছে। এছাড়া গ্রেফতারকৃতদের আদালতে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, পূর্ব নির্ধারিত ১০ লাখ টাকা চাঁদা না দেয়ায় রোববার বিকেল সাড়ে ৫ টায় কলাপাড়া উপজেলার চাকামইয়া ইউনিয়নের ইসলামপুর এলাকার বিসমিল্লাহ ব্রিকফিল্ডের নিজ অফিসে বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহ আলম মিয়াকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে টীয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মশিউর রহমান শিমু মীর এর নেতৃত্বে তার সন্ত্রাসী বাহিনী।

পরে স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। সেখান থেকে পটুয়াখালীর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হলে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রাতেই তাকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।









Leave a reply