নারীর ২টি কিডনি খোয়া যাওয়ার ঘটনায় ঢামেকে মানবাধিকার কমিশন

|

এক নারীর কিডনি খোয়া যাওয়ার ঘটনায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করেছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন।

বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যায় মানবাধিকার কমিশনের তদন্ত কমিটি। প্রথমে তারা ঢাকা মেডিকেল কলেজের প্রিন্সিপালের সাথে দেখা করেন। পরে কমিশনের সদস্যরা যান ফরেনসিক বিভাগে।

তথ্য সংগ্রহ শেষে কমিশনের পরিচালক আল মাহমুদ ফায়জুল কবির বলেন, একটি রিপোর্ট পেতে কেন দুই বছর লাগবে? এখানে ফরেনসিক বিভাগের গাফিলতি রয়েছে। রিপোর্ট পেতে দেরি হওয়া মানবাধিকার লঙ্ঘন বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

তবে দায় অস্বীকার করে ফরেনসিক বিভাগে প্রধান ডা. সোহেল মাহমুদ বলেন, পুলিশের পক্ষ থেকে তাদের কোন রিকুইজিশন দেয়া হয়নি। এছাড়া হিস্ট্রি পিত্ত প্যাথলজি রিপোর্ট তাদের হাতে দেরিতে পৌঁছেছে। ফলে দেরি হয়েছে রিপোর্ট দিতেও। তবে কোন অনিয়ম হয়নি বলেও দাবি করেন ডা. সোহেল।

২০১৮ সালে বিএসএমএমইউতে চলচ্চিত্র পরিচালক রফিক শিকদারের মা রওশন আরা’র শরীরে অস্ত্রোপচারের পর দু’টি কিডনিই গায়েব হয়ে যায়। সম্প্রতি ময়নাতদন্তের রিপোর্টে প্রমাণ পাওয়া যায় সার্জারি করে দু’টি কিডনি অপসারণ করা হয়েছে। এর পরেই মামলা করেন রফিক শিকদার।









Leave a reply