আসলেই, ‘কোথাও কেউ নেই’

|

পৃথিবীর এই মায়ার বন্ধনে আটকে থাকতে পারেনি কেউ, পারবেও না। যাওয়া আর আসার মাঝেই আমাদের জীবন। ছোট্ট সেই জীবনে ভালোবাসায় সিক্ত হতে হয়, জীর্ণতাও ধরে বেদনায়। আর এই আসা যাওয়ায় সঙ্গী হয় না কেউ। জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের জনপ্রিয় নাটক ‘কোথাও কেউ নেই’ এর সেই বদি চলে গেলেন ভালোবাসায় সিক্ত হয়েই।

জনপ্রিয় নাটক ‘কোথাও কেউ নেই’-তে বদি চরিত্রে অভিনয় করে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছিলেন অভিনেতা আব্দুল কাদের। সেই নাটকে বাকের ভাই বদির আশ্রয় হয়ে ছায়া দিয়ে গেছেন বারবার। তুমুল জনপ্রিয় সেই চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন আসাদুজ্জামান নূর। বাস্তবেও বদির বিপদে ছায়া হয়েই সাহস যুগিয়েছিলেন নূর।

ক্যন্সার আক্রান্ত হয়ে গত ক’দিন কঠিন সময় পার করেছেন অভিনেতা আব্দুল কাদের। ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে ভারতের চেন্নাইয়ের একটি হাসপাতালে লড়াই করেছেন। খবর পেয়ে তাকে ফোন করেন আসাদুজ্জামান নূর, দিয়েছিলেন সাহস।

জানা গেছে, বেশ কয়েক দিন ধরে খেতে পারছিলেন না কাদের। কারও সাথে কথাও বলেননি সেভাবে। কিন্তু প্রিয় বাকের ভাইয়ের ফোন পেয়ে কিছুটা সাহস পেয়েছেন, চাঙ্গা অনুভব করেছেন। কিন্তু তা আর স্থায়ী হলো না।

অভিনেতা আব্দুল কাদের বেশকিছু ধরেই অসুস্থ ছিলেন। একাধিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেও কোনো রোগ ধরা পড়ছিল না। কয়েকদিন আগে পুরো শরীর সিটি স্ক্যান করে জানতে পারেন শরীরে টিউমার রয়েছে। সেটি অপসারণ করাতে চেন্নাই গিয়ে জানতে পারেন তার ক্যান্সার। আর দেশে ফেরার পরেই ধরা পড়ে করোনা।

করোনা পজেটিভ হয়ে ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে শনিবার সকালে মৃত্যুবরণ করেন এই গুণী অভিনেতা। এর আগে ১৫ ডিসেম্বর চেন্নাইয়ের একটি হাসপাতালে এই অভিনেতার ক্যানসার ধরা পড়ে। শারীরিক অবস্থা ভালো না থাকায় সেখানকার চিকিৎসকেরা তাকে কেমোথেরাপি দিতে পারেননি।









Leave a reply