প্রেমিকাকে নিয়ে সীমান্ত পার হতে না পেরে যুবকের আত্মহত্যা

|

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ার পাহাড়ি এলাকা থেকে শিপন মালাকার নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ সময় লাশের পাশে থাকা এক কিশোরীকে পাওয়া যায়। প্রেমের সম্পর্কের কারণে ভারতে পালিয়ে যাবার পথে দু’জনের মধ্যে ঝগড়ার কারণে কিশোর আত্মহত্যা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা পুলিশের।

মৃতদেহের পাশে থাকা কিশোরীর বরাতে পুলিশ জানায়, কুলাউড়া উপজেলার পৃথিমপাশা ইউনিয়নের গণকিয়া গ্রামের সিন্ধু মালাকারের ছেলে শিপন মালাকার (১৮) সাথে একই এলাকার আলী আমজদ স্কুল অ্যান্ড কলেজের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী এনি আক্তারের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। দুজন দুই ধর্মের তাই পরিবার মেনে নেবে না ভেবে তারা ভারতে পালিয়ে যাবার সিদ্ধান্ত নেয়।

গত শুক্রবার রাতে স্থানীয় এওলাছড়া পানপুঞ্জির (খাসিয়া পল্লী) পাহাড়ি এলাকা দিয়ে তারা সীমান্তে পৌঁছায়। এ সময় এনি মত বদলে বাড়িতে ফিরে আসার কথা বললে দু’জনের মধ্যে ঝগড়া হয়। ঝগড়ার এক পর্যায়ে গভীর রাতে শিপন এনিকে ধাক্কা দিয়ে উঁচু টিলার নিচে ফেলে দেয়। রাগে অভিমানে এনি টিলার নিচে বাকি রাত বসে কাটায়। ভোরে নড়াচড়া না পেয়ে টিলার উপর শিপনকে খুঁজতে গিয়ে গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় লাশ পরে থাকতে দেখে আত্মীয়স্বজনকে জানায়। পরে পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে। এ সময় এনি লাশের পাশে ছিলো।

কুলাউড়া থানার ওসি (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম জানান, প্রাথমিকভাবে আত্মহত্যা বলেই ধারণা করা হচ্ছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। আর এনিকে তার পরিবারের জিম্মায় পাঠানো হয়েছে।

ইউএইচ/









Leave a reply