এখনও বিচার পায়নি ফেলানীর পরিবার

|

দশ বছরেও শেষ হয়নি সীমান্তে বিএসএফ’র গুলিতে ফেলানী হত্যার বিচার। ২০১১ সালের এই দিনে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর নির্মমতার শিকার হয়ে প্রাণ হারায় কুড়িগ্রামের কিশোরী ফেলানী। কাঁটাতারে সাড়ে ৪ ঘণ্টা ঝুলে থাকে তার মৃতদেহ। নির্মম এই ছবি সমালোচনার ঝড় তোলে বিশ্বজুড়ে।

সেই ঘটনার আড়াই বছর পর ২০১৩ সালে ঘাতক বিএসএফ জওয়ান অমিয় ঘোষের বিচার শুরু হয়। বিএসএফের বিশেষ আদালত নির্দোষ ঘোষণার পর আপিলেও খালাস পান অমিয় ঘোষ। ২০১৫ সালে রিট কর হয় ফেলানীর পক্ষে।

এরপর কেটে গেছে দীর্ঘ সময়। দফায় দফায় দিন ধার্য হলেও ঝুলে আছে মামলার শুনানি। সবশেষ গত বছরের ১৮ মার্চ শুনানির তারিখ নির্ধারণ হলেও করোনার কারণে সেটিও হয়নি। বিচারের দীর্ঘসূত্রতায় হতাশ ফেলানীর পরিবার।









Leave a reply