ফেনীতে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর ওপর হামলা, বোমা বিস্ফোরণ

|

ফেনী প্রতিনিধি :

ফেনী পৌরসভার ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের মেহেদী সাঈদী পৌর বিদ্যা নিকেতন কেন্দ্রে মুহুর্মুহু বোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে কাউন্সিলর সমর্থকরা। পুলিশ-বিজিবিসহ যৌথভাবে কাজ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়েছে সরকার দল এবং বিরোধী দলীয় প্রার্থীদের সমর্থকদের মধ্যে। তবে ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়া তখনো স্বাভাবিক ছিল।

শনিবার বেলা সাড়ে ১০টায় এ ঘটনা ঘটে। ফেনী পৌরসভার ১৪ নম্বর ওয়ার্ডে বিএনপি সমর্থিত দুই কাউন্সিলর প্রার্থীকে মারধর করেছে সরকার দলীয় নেতাকর্মীরা। এতে বিএনপিপন্থী নুরুল ইসলাম ও তাজুল ইসলাম পাবেল আহত হয়েছেন।

বিএনপি সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী নুরুল ইসলাম বলেন, তিনি ঘর থেকে বেরিয়ে নির্বাচন কেন্দ্রের দিকে আসার সময় সরকার দলীয় নেতাকর্মীরা তাকে এবং তার স্ত্রীকে মারধর করে। সরকারদলীয় কাউন্সিলর প্রার্থী নুরুল আলম দিদার বিএনপি প্রার্থীর অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তারা নিজেরা নিজেরা এসব করে সরকার দলের ওপর দোষ চাপাচ্ছে।

১৪ নম্বর ওয়ার্ডে কর্মরত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, কেন্দ্রের বাইরে দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়েছে। পুলিশ-বিজিবির হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়েছে। তবে ভোটগ্রহণ বন্ধ হয়নি।

ফেনী সদর সার্কেলের অতিরিক্ত আতোয়ার রহমান বলেন, এখানে দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ বিজিবি হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

এদিকে, বিএনপির মেয়র প্রার্থী আলাল উদ্দিন আলাল বলেন, ৪৫টি কেন্দ্রের মধ্যে পাঁচটি ছাড়া বাকি সবগুলোতে সরকার দলীয় নেতাকর্মীরা ভিতরে বসে ব্যালটে সিল মারছেন। বিএনপি নেতাকর্মী কিংবা ভোটারদের সেদিকে যেতে দিচ্ছে না।

ইউএইচ/









Leave a reply