কাস্টমস এজেন্টস সদস্যদের পাশে থাকতে চান বেলায়েত হোসেন

|

আসন্ন ঢাকা কাস্টমস এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশন নির্বাচনে মিজান-লাভলু-বাশার পরিষদে ছাতা মার্কা প্যানেলে কাস্টমস সম্পাদক পদে লড়ছেন বেলায়েত হোসেন। তরুণ মেধাবী এবং সফল ব্যবসায়ী ও সমাজ সেবক হিসেবে এরইমধ্যে বেশ গ্রহণযোগ্যতা পেয়েছেন বেলায়েত হোসেন।

চলতি মাসের ১৮ তারিখ নির্বাচন হওয়ার কথা থাকলেও এটি অনুষ্ঠিত হবে ১ এপ্রিল। মুজিব শতবর্ষ উদযাপন এবং ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠান ঘিরে নির্বাচন কমিশন এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। পহেলা এপ্রিল সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত অ্যাসোসিয়েশন ভবনে ভোটগ্রহণ হবে।

কাস্টমস এজেন্টস অ্যাসোসিয়েশন নির্বাচনে দুটি প্যানেলে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের আভাস দিচ্ছেন সদস্যরা। তবে প্রচারণা এবং জনপ্রিয়তায় অনেকটা এগিয়ে আছে মিজান-লাভলু-বাশার পরিষদ।

নির্বাচন নিয়ে বেলায়েত হোসেন জানান, কাস্টমস সুবিধা নিশ্চিত করতে এজেন্ট সদস্যদের পাশে থাকতে চান। নির্বাচিত হলে সদস্যদের অধিকার আদায়ে সচেষ্ট থাকবেন।

মিজাল লাভলু বাশার পরিষদ বিজয়ী হওয়ার দৃঢ় প্রত্যয় জানিয়ে বেলায়েত হোসেন আরও বলেন, কাস্টমসের শৃঙ্খলা ফিরিয়ে এনে এজেন্ট সদস্যদের পাশে থাকার মাধ্যমে পরিচ্ছন্ন ব্যবসায়ীবান্ধব পরিবেশ তৈরি করাই হবে আমাদের অন্যতম প্রধান লক্ষ্য।

ঢাকা কাস্টসম এজেন্টস অ্যাসোসিয়েশন নির্বাচন খুবই গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখ করে বেলায়েত হোসেন বলেন, বিমানবন্দর কার্গো, কমলাপুর আইসিডি ও পানগাঁও আইসিডি এসব গুরুত্বপূর্ণ এলাকা কাস্টমস পয়েন্ট দিয়ে কোটি কোটি টাকার আমদানি এবং রফতানি পণ্য জাহাজীকরণ হয়। সৎ ও যোগ্য ব্যবসায়ীবান্ধব নেতৃত্ব নির্বাচিত হলে এই খাতের উন্নয়নের পাশাপাশি দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের ধারাকে এগিয়ে নিতে সহায়তা করবে।









Leave a reply