বলিউডের তুখোড় অভিনেত্রী শশীকলার বিদায়

|

চলতি বছরে আরও এক নক্ষত্রের বিদায়। শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন বর্ষীয়ান বলিউড অভিনেত্রী শশীকলা। রোববার মুম্বাইয়ের কোলাবায় নিজের বাড়িতে মৃত্যুবরণ করেন তিনি।

শশীকলার বয়স হয়েছিল ৮৮। তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে বিনোদন জগতে। প্রায় শতাধিক ছবিতে অভিনয়ের পাশাপাশি একাধিক জনপ্রিয় টিভি শো-তেও দেখা গিয়েছে তাকে।

শশীকলার জন্ম ১৯৩২ সালে মহারাষ্ট্রের সোলাপুরে। খুব অল্প বয়স থেকেই অভিনয়ে হাতেখড়ি তার। ১৯৫৩ সালে ‘তিন বাতি চার রাস্তা’ ছবিতে অভিনয় করে প্রথমবার নজরে আসেন তিনি। কিন্তু ১৯৬২ সালের ‘আরতি’ ছবিতে অভিনয়ই তাকে খ্যাতি এনে দেয়। সেই ছবিতে মীনা কুমারী, অশোক কুমার, প্রদীপ কুমারের মতো অভিনেতা-অভিনেত্রীদের সঙ্গে দাপটে অভিনয় করেন তিনি।

শশী এর পরবর্তী সময়ে ‘খুবসুরত’, ‘অনুপমা’, ‘আয়ি মিলন কি বেলা’র মতো সুপারহিট ছবিতে তার অভিনয় দর্শকপ্রিয় হয়।

খোদ শাহরুখ-সালমানদের সঙ্গে নব্বই দশকে পর্দা কাঁপিয়েছেন এই অভিনেত্রী। ‘বাদশাহ’ (১৯৯৯) ছবিতে শাহরুখ খানের মায়ের ভূমিকায় ছিলেন শশীকলা। পরবর্তী সময়ে ব্লকবাস্টার ‘কভি খুশি কভি গাম’ ছবিতেও বিশেষ উপস্থিতিতে নজর কাড়েন।

কেবল শাহরুখ নয়, সালমানের সঙ্গেও ‘মুঝসে শাদি করোগে’র মতো (২০০৪) হিট ছবিতে কাজ করেছিলেন তিনি। সেখানে তিনি সালমানের ঠাকুর্মা হয়েছিলেন। ছোট পর্দায় ‘সোনপড়ি’, ‘জিনা ইসি কা নাম হ্যায়’-এর মতো জনপ্রিয় শোয়েও দেখা গিয়েছে তাকে।









Leave a reply