ইসরায়েলের জন্য ‘নরক’ তৈরিতে সক্ষম ইরান

|

ইরানের মনুষ্যবিহীন বিমান  (ড্রোন) ইসরায়েলে প্রবেশ করেছে, তেল আবিবের এমন দাবিকে ‘হাস্যকর’ বলে মন্তব্য করেছে তেহরান। পাশাপাশি দেশটির জন্য ‘নরক’ তৈরি, এবং মধ্যপ্রাচ্যে সকল মার্কিন ঘাঁটি ধ্বংসের সক্ষমতা রয়েছে বলে হুশিয়ারি জানিয়েছে ইরান।
দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বাহরাম কাশেমি বলেন, “ইরানি ড্রোনের ইসরায়েলে প্রবেশ, দেশটির যুদ্ধবিমান ভূপাতিত করার বিষয়ে ইরানের সংশ্লিষ্টতার দাবি ভিত্তিহীন ও হাস্যকর।”
তিনি আরও বলেন, “সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে নিজের ভূখণ্ডকে রক্ষা ও বিদেশি আক্রমণ মোকাবেলার অধিকার দেশটির রয়েছে (সিরিয়া)। আইন সিদ্ধ একটি সরকারের (সিরিয়া) অনুরোধে ইরানের কর্মকর্তারা সেখানে উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করছে।”
ইরানের বিপ্লবী বাহিনীর উপ-প্রধান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হোসেন সালামি বলেন, “জায়নবাদী দেশটির জন্য নরক তৈরির সক্ষমতা ইরানের রয়েছে।”
যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা আরোপের প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, “সকল প্রতিকূলতার বিপক্ষে অবিচল থাকতে ইরান সমর্থ, এবং ক্ষেপনাস্ত্র হামলা চালিয়ে এ অঞ্চলের সকল মার্কিন ঘাঁটি ধ্বংস করে দিতে পারে।”
শনিবার ইসরায়েলের সেনাবাহিনী জানিয়েছিল, তারা ইরানের একটি ড্রোন সিরিয়া সীমান্তে বিধ্বস্ত করেছে। ড্রোনটিকে অনুসরণ করে উত্তর সিরিয়ার একটি এলাকায় বিমান হামলাও চালায় দেশটি। এর কয়েক ঘণ্টার মধ্যে ইসরায়েলের একটি এফ-১৬ যুদ্ধবিমান ভূপাতিত করে সিরিয়া।

ভূপাতিত বিমানটির দু’জন পাইলটই প্রাণে বেঁচেছেন। এর জবাবে ইসরায়েল সিরিয়ায় অবস্থিত ইরান ও সিরিয়ার ১২টি স্থাপনায় হামলা চালিয়েছে।

 

যমুনা অনলাইন: এফএইচ









Leave a reply