বিনয় দত্তের উপন্যাস “অমৃতায়ন”

|

 

তরুন লেখক বিনয় দত্তের উপন্যাস “অমৃতায়ন” প্রকাশনা সংস্থা ‘পুথিনিলয়’ থেকে প্রকাশিত হয়েছে। প্রচ্ছদ করেছেন সারাজাত সৌম। পাওয়া যাচ্ছে বইমেলার  ২০০, ২০১, ২০২ স্টলে।

উপন্যাসটি মূলত ভিন্ন সময়ের উপন্যাস। আটনগরী গ্রামে বেড়ে উঠা পুরানো শিউলি ফুল গাছ… এই শিউলি ফুল গাছের আচ্ছন্নতা মাতিয়ে রাখে উপন্যাসের প্রধান চরিত্র অনিকেতকে। শরতের শাব্দিক সমাবেশ। কর্ণকিঙ্করী নদীতে ভেসে চলেছে গ্রামীণ জীবন… যেই জীবনে লুকিয়ে আছে অনিকেতের নিজের গল্পও।

ষাটের দশকের প্রেক্ষাপটে লেখা উপন্যাস “অমৃতায়ন”। দেশভাগের সেই বীভৎস সময়, সেই সময়ের মানুষের আচরণ, বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি একদিকে যেমন উঠে এসেছে অপরদিকে উঠে এসেছে একটি পরিবারের টিকে থাকার আকুল আকুতি। দেশভাগ ও দাঙ্গার অস্থির সময়ের স্মৃতি নিয়ে বেড়ে উঠা মেধাবী তরুণ অনিকেত। কলেজে পড়ুয়া এই তরুণ দরিদ্র পরিবারে কোনোরকমভাবে বেড়ে উঠেছে, দারিদ্রতা তার সকল সময়ের সঙ্গী। দুই একটা টিউশন তার কাছে অনেক বড়মাপের বেঁচে থাকার সঞ্জিবণী শক্তি। মেধার কল্যাণেই অনিকেতের সাথে আলাপ হয় অরুণিমার। শহুরে পরিবেশে বেড়ে উঠা মেয়ে অরুণিমা। গ্রামীণ পরিবেশ তার কাছে অপরিচিত। এই অচেনা, অপরিচিত পরিবেশই অরুণিমার কাছে নৈসর্গিক হয়ে ওঠে। অরুণিমার সাবলীলতা অনিকেতকে মুগ্ধ করে রাখে সবসময়।

গ্রামের সরল রেলপথ দিয়ে ছুটে চলা ট্রেনের হুইসেলের শব্দ অনিকেতের মনে বেজে চলেছে বিকট আকারে। রক্ষণশীল সমাজের রক্তচক্ষুকে এড়িয়ে মাঝে মাঝে অরুণিমা অনিকেতকে নিয়ে বেড়িয়ে পড়ে আটনগরী গ্রামের মুগ্ধতা দর্শনে। গ্রামের সৌন্দর্য, সারল্য, অনাবিল পরিবেশ অরুণিমাকে মুগ্ধতার বেড়ি পড়িয়ে রাখে সবসময়। এই মুগ্ধতা কখন যে মগ্নতায় পরিণত হয় তা অরুণিমা বুঝতে পারে না। অরুণিমার প্রতি মগ্নতার রেশ অনিকেতের চোখেমুখে খেললেও তা প্রকাশ করতে পারে না। সেই মগ্নতা ছাড়িয়ে অনিকেত কি নিজের পরিবারের হাল ধরতে পারবে? নাকি মগ্নতায় ভেসে যাবে অন্য সাধারণের মতো? তা জানা যাবে উপন্যাসের শেষাংশে।

উপন্যাসের সরল গদ্যভঙ্গিমা পাঠককে টেনে নিয়ে যাবে উপন্যাসের শেষ পর্যন্ত। উপন্যাসের স্বাদ আস্বাদনে পাঠক নিজেদের অমৃতায়নের মধ্যেদিয়ে আবিষ্কার করবে। এ যেন অমৃতায়ন উপন্যাসের মধ্যেদিয়ে অমৃতায়নের স্বাদ পাওয়া।

লেখক বিনয় দত্তের বাড়ি চট্টগ্রামে। লেখালেখির সূত্রপাত ছেলেবেলাতেই। ২০০৫ সাল থেকে লেখক হিসেবে নিজেকে তৈরি করার লক্ষ্যে সক্রিয় সাহিত্যচর্চা শুরু। গতবছরে বেরিয়েছে তার গল্পগ্রন্থ ‘চিলতে মেঘ ও কুহুকেকার গল্প’। বর্তমানে তিনি একটি বেসরকারি টেলিভিশনে কর্মরত।

 

 









Leave a reply