ভালোবাসার উপহার হয়ে ৯০ দেশে কলম্বিয়ার ফুল

|

পশ্চিমা সংস্কৃতির উৎসব ‘ভ্যালেন্টাইনস ডে বা ভালবাসা দিবস’ আজ। আর বিশেষ এই দিনের অপরিহার্য অনুষঙ্গ ফুল। বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে প্রেম নিবেদন বা শুভেচ্ছা বিনিময় সব ক্ষেত্রেই ফুলের জয়জয়কার। দিনটিকে সামনে রেখে গত কয়দিন ব্যস্ত সময় কাটিয়েছেন বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম ফুল উৎপাদনকারী দেশ কলম্বিয়ার খামারিরা। সেই ধারাবাহিকতায় ভালোবাসা দিবসের আগেই বিশ্বের ৯০টি দেশে পৌঁছে যাচ্ছে লাতিন ফুলের সৌরভ।

কলম্বিয়ার কৃষিমন্ত্রী হুয়ান গিলারমো বলেছেন, “যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় ফুলের যোগানদাতা কলম্বিয়া। মার্কিন মূলুকে প্রায় ৮০ ভাগ গোলাপ যায় আমাদের খামারগুলো থেকে। এছাড়া, বিভিন্ন জাত মিলিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় ৯৭ ভাগ ফুলের চাহিদা মেটাই আমরা। এরইমধ্যে, বিশ্বের ৯০টি দেশে গেছে কলম্বিয়ার ফুল, আশা করছি- ভবিষ্যতে এই পরিধি আরও বাড়বে।”

প্রতিবেশী ভেনিজুয়েলায় রাজনৈতিক অস্থিরতা আর অর্থনৈতিক মন্দা চলার কারণে, গেলো একবছরে কলম্বিয়ায় বেড়েছে ভেনিজুয়েলানদের নাগরিকদের আগমন। তাই, মৌসুমী এই ফুলের ব্যবসায় তাদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থাও হয়ে যাচ্ছে।

চলতি বছর, ইউরোপের দেশগুলোয় ভ্যালেন্টাইনস ডে পড়বে বুধবার। এজন্য ফুল ব্যবসায়ীরা আরও অধিক লাভের আশা করছেন। কারণ ছুটির দিনগুলোর তুলনায় কর্মদিবসে ফুলের বেচাকেনা ভালো হয়। অফিসের যাওয়ার তাড়ায় সহজ উপহার হিসেবে ফুলকেই বেছে নেন বেশিরভাগ মানুষ।









Leave a reply