আসছে শাওমি রেডমি নোট ফাইভ প্রো

|

কম খরচে দামী ফোনের ফিচার পেতে যারা আগ্রহী, তাদের প্রথম পছন্দের মোবাইল ফোন হলো শাওমি। স্মার্টফোনের জগতে চীনা কোম্পানিটির উত্থান আসলেই চমকপ্রদ। আর শাওমিকে সবচেয়ে বেশি সাফল্য এনে দিয়েছে এর রেডমি নোট সিরিজ। বিশেষ করে গত বছর জানুয়ারিতে বের হওয়া নোট ফোর। নির্দিষ্ট প্রাইস ক্যাটাগরিতে এর সমকক্ষের কোন ফোন এখনও আনতে পারেনি কেউ। শাওমিও না। গত এক বছরে চীনা কোম্পানিটি অনেকগুলো মডেল বাজারে আনলেও, কোনটিই রেডমি নোট ফোরের জায়গা নিতে পারেনি। নোট ফোরের উত্তরসূরির জন্য শাওমি ভক্তরা দীর্ঘদিন অপেক্ষা অবশেষে শেষ হতে যাচ্ছে। আসছে রেডমি নোট ফাইভ প্রো।

ভ্যালেন্টাইনস ডে-তে ভারতের বাজারের জন্য দুটি নতুন মডেলের উন্মোচন করেছে শাওমি। এর একটি হলো রেডমি নোট ফাইভ। যেটি মূলত গত কয়েকমাস ধরে বাজারে বিকোনো রেডমি ফাইভ প্লাসেরই আরেক নাম। তবে একেবারে আনকোরা সেট হলো রেডমি নোট ফাইভ প্রো। চলুন দেখে নেয়া যাক কি থাকছে এতে।

প্রথম পার্থক্য হচ্ছে চিপসেটে। দীর্ঘদিন ধরে ব্যবহৃত স্ন্যাপড্রাগন ৬২৫ এর পরিবর্তে নোট ফাইভ প্রোতে ব্যবহার করা হয়েছে নতুন ৬৩৬ চিপসেট। বদলে গেছে প্রসেসরও। কর্টেক্স এ-৫৩ এর পরিবর্তে এসেছে ক্রিও ২৮০। অ্যাড্রেনো ৫০৬ এর জায়গায় এসেছে অ্যাড্রেনো ৫০৯ গ্রাফিক্স প্রসেসর।

তবে প্রসেসর-চিপসেটের চেয়ে যে ফিচারটা গ্রাহককে বেশি টানবে, তা হলো ক্যামেরা। হ্যা, অবশেষে রেডমি সিরিজে যোগ হয়েছে ডুয়াল ক্যামেরা। ১২ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি ক্যামেরার সাথে আছে ৫ মেগাপিক্সেল ডেপথ সেন্সর ক্যামেরা। আর সেলফি তোলার জন্য ফ্রন্টে রয়েছে ২০ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। একই সাথে ফেস অানলকেও কাজে আসবে ক্যামেরাটি। রেডমি নোট ফাইভ প্রো দিয়ে ফেস আনলকের জগতে প্রবেশ করলো শাওমি।

এর বাইরে বাকি সব কনফিগারেশন আগের মতো। সাইজ আর ডিসপ্লে রেডমি ফাইভ প্লাসের সমান। অর্থাৎ ৬ ইঞ্চি ফুল ভিউ ডিসপ্লে। রয়ে গেছে হাইব্রিড সিম স্লট। তবে এবারও ফাস্ট চার্জিং ফিচার যোগ করেনি শাওমি। আসেনি টাইপ সি কানেকটর।

রেডমি নোট ফাইভ প্রো বাজারে আসবে ৬৪ জিবি ও ৩২ জিবি বিল্ট ইন স্টোরেজ নিয়ে। ৬৪ জিবির ভার্সনটিতে র‍্যাম থাকবে ৬ অথবা ৪ জিবি। ৩২ জিবির ভার্সনটিতে থাকবে ৩ জিবি র‍্যাম। ভারতীয় বাজারে ১৪ ফোনটি দাম ধরা হয়েছে ১৪ এবং ১৭ হাজার রুপি।









Leave a reply