দূষণ ঠেকাতে বিনামূল্যে ট্রেনের টিকিট

|

বায়ু দূষণ ঠেকাতে নাগরিকদের বিনামূল্যে ট্রেন ভ্রমণের সুবিধা দেওয়ার কথা ভাবছে জার্মানি। দূষণের মাত্রা কমাতে গৃহীত এক গুচ্ছ কর্মসূচির আওতায় এ উদ্যোগ নেওয়া হবে।

ইউরোপীয় ইউনিয়নে (ইইউ) জার্মান মন্ত্রী কারমেনু ভেলা’র লেখা এক চিঠিতে এ বিষয়ে সুপারিশ করা হয়েছে। অন্যান্য উদ্যোগের মধ্যে রয়েছে বিদ্যুৎ চালিত গাড়ির প্রচলন, এবং কম দূষিত এলাকা ঘোষণা করা।

বিষয়টিতে একমত হয়েছেন দেশটির পরিবেশ মন্ত্রী, কৃষি মন্ত্রী, এবং চ্যান্সেলারি প্রধান। তারা বলেন, “ব্যক্তিগত গাড়ির সংখ্যা কমাতে বিনামূল্যে ট্রেনের টিকিট প্রদানে বিষয়ে আমরা চিন্তা-ভাবনা করছি।”এ বিষয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন দেশটির পৌর কর্পোরেশনগুলোর সংগঠন কাউন্সিল অব জার্মান সিটিজ-এর প্রধান হেলমুট ডেডি।

তিনি বলেন, “দূষণ হ্রাসে টিকিটের দাম কমানোর ব্যাপারে আমরা চিন্তা-ভাবনা করছিলাম। তবে পুরোটা বিনামূল্যে দিতে হলে কেন্দ্রীয় সরকারকে অর্থায়ন করতে হবে।”

বর্তমানে জার্মানির বেশির ভাগ গণ পরিবহনের মালিকানা রয়েছে পৌর কর্পোরেশনের হাতে।

চলতি বছরের শেষ নাগাদ বন, এসেন, হেরেনবার্গ, র’টলিনজেন, এবং ম্যানহাইমে বিনামূল্যে ট্রেন ভ্রমণের কর্মসূচি হাতে নেওয়া হবে। এটি ফলপ্রসূ হলে দেশের অন্যান্য শহরগুলোতেও এ পন্থা কার্যকর করা হবে।

দূষণের মাত্রা কমাতে ইউরোপীয় কমিশনের চাপের মুখে রয়েছে জার্মানি। বায়ুর মান উন্নয়নে গত জানুয়ারি মাসে আরও কঠোরতা অবলম্বনে অঙ্গীকার ব্যক্ত করে ইইউ।

বিভিন্ন শহরে নির্ধারিত মাত্রার তুলনায় বায়ু দূষণের হার বেশি হওয়ায় ইইউ’র কর্তৃক আইনানুগ ব্যবস্থার মুখে পড়েছে জার্মানি। শুধু জার্মানির নয়, ইইউ’র বেঁধে দেওয়া ৩০ জানুয়ারি সময়ের মধ্যে স্পেন ও ইতালিও বায়ু দূষণের মাত্রা কমাতে পারিনি।

ইউরোপীয় কমিশনের হিসাব অনুসারে, দূষণের কারণে ‘জীবনের জন্য হুমকি’-তে রয়েছে ইউরোপের ১৩০টি শহর। প্রতিবছর দূষণে ফলে মারা যাচ্ছে চার লাখ মানুষ। আর্থিক ক্ষতির পরিমাণ ২০ বিলিয়ন ইউরো।

যমুনা অনলাইন: এফএইচ









Leave a reply