বিশ্ব রেকর্ড গড়ে অস্ট্রেলিয়ার জয়

|

মার্টিন গাপটিলের ব্যাটিং তাণ্ডবে ভর করে ২৪৩ রান সংগ্রহ করেছিল নিউ জিল্যান্ড। সেই রানকে ‘মামুলি’ সংগ্রহ বানিয়ে ত্রিদেশীয় টি২০-টোয়েন্টি সিরিজের টানা চতুর্থ জয় তুলে নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। শুধু তাই নয়, হাতে বাকি ছিল আরও সাত সাতটি বল।

ত্রি-দেশিয় ট্রান্স তাসমান সিরিজে প্রাথমিক পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে শুক্রবার ৫ উইকেটের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে অস্ট্রেলিয়া। সেই সাথে টি২০-তে রান তাড়া করার বিশ্ব রেকর্ডটিও নিজেদের করে নিয়েছে অসিরা।

টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় নিউ জিল্যান্ড। অকল্যান্ডের ইডেন পার্কে অসি বোলারদের বলগুলোকে বেধড়ক ‍পিটুনিতে মাঠের বাইরে পাঠাতে থাকেন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান মার্টিন গাপটিল। তিনি ৯টি ছয় ও ৬টি চারের মারসহ ৫৪ বলে ১০৫ রান করেন।

গাপটিলের এই পিটুনিতে ভালোই তাল ধরেছিলেন অপর উদ্বোধনী ব্যাটম্যান মুনরো। তিনি ৬টি করে ছয় ও চারের মারসহ ৪৪ বলে ৭৬ রান করেন। বাকি ব্যাটসম্যান কেউই ২০ রানের ঘর পেরোতে পারেনি।

তাতে কি? দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যানের অতি মানবীয় দুই ইনিংসের সুবাধে নিউ জিল্যান্ড নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ২৪৩ রান সংগ্রহ করে।

প্রতিপক্ষকে ওভার প্রতি ১২ রানের দেওয়া লক্ষ্যমাত্রার অমন রান স্কোর বোর্ডে থাকলে কি কেউ হারের চিন্ত করে। নিউ জিল্যান্ডও হয়তো করেনি! এমনকি অনেক দর্শকও সেটা ভাবেননি।

তবে দলটি যখন অস্ট্রেলিয়া তখন একটা প্রতিযোগিতা হবে, এটি অনেকেই ভেবেছেন নিশ্চয়? কে কি ভেবেছে, তা নিয়ে মাথা না ঘামিয়ে অস্ট্রেলিয়ার ড্রেসিং ঠিকই জয়ের দিকে চোখ রেখে মাঠে নেমেছিল।

দুই অসি উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান প্রায় সমান তালে গাপটিলের ব্যাটিং লয়ে দলে জন্য একটি শক্ত ভিত গড়ে দেন। প্রথম উইকেট জুটিতে ৮ ওভার ৩ বলে তারা ১২১ রান করেন। সাউদির বলে বোল্ড হওয়ার আগে ৫টি ছক্কা ও ৪টি চারের মারসহ ২৪ বলে ৫৯ রান করেন ডেভিড ওয়ার্নার। অপর ব্যাটসম্যান শর্ট ৩টি ছক্কা ও ৮টি চারের মারসহ ৮৪ বলে ৭৬ রান করেন। তিনি যখন আউট হন তখন অসিদের সংগ্রহ ৪ ইউকেটে ২১৭ রান। খেলার আরও ৩ ওভার ২ বল বাকি।

মাঝে ছোট ছোট ঝড় গতির কার্যকরি দুইটি ইনিংস খেলেন লিন ও ম্যাক্সওয়েল। শর্টের আউটের পর অস্ট্রেলিয়াকে রেকর্ড রান তাড়া করা জয় এনে দেন ফিঞ্চ। তিনি ৩টি করে ছক্কা ও চারের মারসহ ১৪ বলে ৩৬ রানের বিস্ফোরক ইনিংস খেলেন।

চার ম্যাচের সবক’টি জিতে ৮ পয়েন্ট নিয়ে সিরিজের পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে রয়েছে অস্ট্রেলিয়। এক ম্যাচ জিতে নিউ জিল্যান্ডের সংগ্রহ ২ পয়েন্ট। এখনও পর্যন্ত কোনো ম্যাচ জিততে পারেনি ইংল্যান্ড। প্রাথমিক পর্বের শেষ ম্যাচে রোববার  হ্যামিল্টনে নিউ জিল্যান্ডের মোকাবেলা করবে ইংল্যান্ড।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

টস: নিউ জিল্যান্ড (প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত)

নিউ জিল্যান্ড: ২০ ওভারে ২৪৩/৬ (গাপটিল ১০৫, মানরো ৭৬, সাইফার্ট ১২, চ্যাপম্যান ১৬, ডি গ্র্যান্ডহোম ৩, টেইলর ১৭*, উইলিয়ামসন ১, হুইলার ১*; রিচার্ডসন ২/৪০, স্ট্যানলেক ১/৪৩, টাই ২/৬৪, স্টয়নিস ০/৫০, অ্যাগার ১/২৪, শর্ট ০/১৯)

অস্ট্রেলিয়া: ১৮.৫ ওভারে ২৪৫/৫ (ওয়ার্নার ৫৯, শর্ট ৭৬, লিন ১৮, ম্যাক্সওয়েল ৩১, ফিঞ্চ ৩৬*, স্টয়নিস ৪, ক্যারি ১*; বোল্ট ১/৪২, হুইলার ০/৬৪, সাউদি ১/৪৮, সোধি ১/৩৫, ডি গ্র্যান্ডহোম ১/৫৬)

ম্যান অব দ্য ম্যাচ: ডার্চি শর্ট









Leave a reply