স্বামী পর্ন আসক্ত, স্ত্রী সুপ্রিম কোর্টে

|

স্বামী নীল ছবিতে ভয়াবহ আসক্ত। অফিস থেকে ফিরে প্রতিদিনই বসে পড়েন নীল ছবি বা পর্ন দেখতে। এতে ভেঙ্গে পড়ার উপক্রম হয়েছে বৈবাহিক জীবন। সংকট সমাধানে ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন স্ত্রী।

হিন্দুস্থান টাইমস-এর প্রতিবেদের অনুসারে, নিজের জীবনের ঘটনাটি তুলে ধরে এর প্রতিকার চেয়ে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন মুম্বাইয়ের ২৭ বছরের এক নারী । ওই নারীর দাবি, তার স্বামী কিশোর বয়স থেকেই পর্ন ছবিতে আসক্ত।

আবেদনে তিনি বলেন, “জাতীয় অগ্রগতি পথে বড় ধরনের বাধা ও প্রতিকূলতা তৈরি করছে পর্ন ছবির সহজলভ্যতা। এটি তরুণদের বিকৃত মানসিকতার দিকে নিয়ে যাচ্ছে। ফলে প্রজনন ক্ষমতা হ্রাসের পাশাপাশি যৌন অপরাধ, বৈবাহিক বিবাদসহ নানাবিধ ধ্বংসাত্মক ঘটনা ঘটছে …….।”

সবশেষ তথ্য মতে, এ আবেদনের বিষয়ে আদালত এখনও শুনানির তারিখ ধার্য করেনি।

প্রতিবেদনটিতে আরও বলা হয়, স্বামী বিকৃত পর্ন আসক্তিতে ভুগছে বলে স্ত্রী দাবি করছেন। পর্ন দেখার পর বিকৃত সব যৌন কাজে লিপ্ত হতেও তাকে বাধ্য করে তার স্বামী। কিছু দিন ধরে আচরণেও অস্বাভাবিকতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এ নিয়ে কলহের জেরে বিবাহ বিচ্ছেদের জন্য পারিবারিক আদালতে আবেদন জানিয়েছে তার স্বামী।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের শেষ দিকে অপর এক নারী তার স্বামীর বিরুদ্ধে প্রায় একই ধরনের অভিযোগ করেছিলেন। বন্ধুদের পর্ন আসক্তি থেকে ফেরাতে দ্বাদশ শ্রেণির এক ছাত্রও এর আগে পর্ন সাইগুলো বন্ধ করতে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিল।

দেশটির কেন্দ্রীয় সরকার জানিয়েছে, ইতিমধ্যে শিশু পর্ন ছবির সাইটগুলোর ওপর সব ধরনের নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। তবে,  এর বেশি কিছু করতে তারা ইচ্ছুক নয়। কেননা, এতে করে নাগরিকদের গোপনীয়তার অধিকার লঙ্ঘন করা হবে। পাশাপাশি নৈতিকতা বিষয়ে পুলিশি কার্যক্রম চালাতেও তারা ইচ্ছুক নয়।

যমুনা অনলাইন: এফএইচ









Leave a reply