পটুয়াখালীতে ১৫ হাজার মানুষ করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়ে অনিশ্চয়তায়

|

পটুয়াখালী প্রতিনিধি:

পটুয়াখালীতে করোনা টিকাদান কার্যক্রম বন্ধ হওয়ায় প্রায় পনের হাজার মানুষ দ্বিতীয় ডোজ টিকা গ্রহণ থেকে বঞ্চিত হয়েছেন। টিকার মজুত শেষ হওয়ায় এ কার্যক্রম বন্ধ করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন সিভিল সার্জন ডাঃ মোহাম্মদ জাহাংগীর আলম শিপন।

এদিকে কোন ঘোষণা ছাড়াই টিকা দেয়া বন্ধ করায় অনেকেই টিকাদান বুথে এসে ফিরে যেতে দেখা গেছে। গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ৮টি বুথসহ আটটি উপজেলার বিভিন্ন স্বাস্থ্যকেন্দ্রের মোট ৩২টি বুথে করোনা টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়।

সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা গেছে, জেলায় এ পর্যন্ত টিকা গ্রহণের জন্য সর্বমোট নিবন্ধন করেছে ৫৮,৫৮২ জন। রোববার পর্যন্ত ১ম ডোজ টিকা গ্রহণ করেছেন ৪৫,৫৩৭ জন। অর্থাৎ নিবন্ধনকৃতদের মধ্যে মোট ১৩০৪৫ জন প্রথম ডোজ টিকা নেয়া থেকে বঞ্চিত হয়েছেন। রোববার (২৩ মে) পর্যন্ত ৪৫৫৩৭ জন ১ম ডোজ টিকা গ্রহণকারীদের মধ্যে পুরুষ ২৯২০৮ জন এবং নারী ১৬৩২৯ জন। রবিবার পর্যন্ত দ্বিতীয় ডোজ টিকা গ্রহণ করেছেন ৩০৮২৪ জন। যার মধ্যে পুরুষ ২০৪৬৩ জন এবং নারী ১০৩৬১ জন। অর্থাৎ প্রথম ডোজ টিকা গ্রহণকারীর মধ্যে মোট ১৪৭১৩ জন আপাতত দ্বিতীয় ডোজ টিকা নিতে পারছেনা।

পটুয়াখালী সিভিল সার্জন মোঃ জাহাংগীর আলম শিপন জানান, পটুয়াখালী জেলায় যে পরিমাণ করোনা টিকা বরাদ্দ পাওয়া গিয়েছিল, তা শেষ হয়েছে। যে কারণে রোববার (২৩ মে) থেকে জেলায় করোনা টিকা দেওয়ার কার্যক্রম সাময়িক বন্ধ রয়েছে। তবে বরাদ্দ পাওয়া গেলে আবার টিকাদান শুরু করা হবে।









Leave a reply