এক ম্যাচে ১০ লাল কার্ড!

|

ফুটবল খেলায় অনেক সময় রেফারি ভেদে কার্ড দেখানোর মাত্রা বেশি হয়ে থাকে।  তাই বলে দু’দলের ২২ জন খেলোয়াদের মধ্যে ১০ জনকে লাল কার্ড। মাঠে থাকলো হারাধনের ১২টি ছেলে। আবার ৮টি হলুদ কার্ডও দেখানো হয়েছিল।

ঠিক এমনটি ঘটেছে ব্রাজিলের একটি ফুটবল টুর্নামেন্টে। ফুটবল শৈলীর জন্য বিখ্যাত ব্রাজিল, সেই দেশের বাহিয়া স্টেট চ্যাম্পিয়নশিপে ভিটোরিয়া ও বাহিয়ার মধ্যকার খেলায় রেফারি ১০টি লাল কার্ড, এবং ৮টি হলুদ কার্ড দেখিয়েছেন।

উত্তাপ ও উত্তেজনাপূর্ণ ঘটনায় ম্যাচের প্রথমার্ধে শেষ হয় এ সময় স্বাগতিক বাহিয়া এক গোলে এগিয়ে গিয়েছিল। দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচের ৫০ মিনিটের মাথায় রেফারি স্বাগতিকদের পক্ষে একটি ‘বিতর্কিত’ পেনাল্টি দেন।

পেনাল্টি শট থেকে বাহিয়া দলের ডেনিলসন গোল করেন। এই পর্যন্ত সবকিছুই নিয়ন্ত্রণে ছিল। কিন্তু বিরোধের বারুদে আগুন ধরান ডেনিলসনই। গোল করার পর তিনি গ্যালিরিতে উপস্থিত নিজ দলের সমর্থকদের সামনে নাচতে শুরু করেন।

তার সাথে যোগ দেন সতীর্থ খেলোয়াড়রা। সাথে যোগ দেন বিপক্ষ দলের খেলোয়াড়রাও; তবে নাচতে নয়; মারতে! ধুন্ধুমার সেই মারামারি থামাতে বেচারা রেফারির ও তার সহাকারী, এমনকি অপরাপর ব্যক্তিদের ‘জান পেরেশান’ অবস্থা।

এই খণ্ড লঙ্কাকাণ্ড থামিয়ে ম্যাচটি পুনরায় শুরুতে লেগেছে ১৬ মিনিটি। লাল কার্ড দিয়ে বহিস্কার করা হয়েছিল উভয় দলের মোট ৮ জন খেলোয়াড়কে। এর মধ্যে ৩টি লাল কার্ড দেখানো হয়েছিল ভিটোরিয়ার খেলোয়াড়দের। অপরদিকে বাহিয়া’র খেলোয়াড়দের দেখানো হয়েছিল ৫টি লাল কার্ড!

কিন্তু এখানেই লাল কার্ডের প্রদর্শনী শেষ হয়নি। খেলা পুনরায় শুরু হওয়ার ১১ মিনিটের মধ্যে ভিটোরিয়া’র আরও দুই খেলোয়াড়কে লাল কার্ড দেখানো হয়।

এমন পরিস্থিতিতে ম্যাচটি বাতিল করা হয়, এবং বাহিয়াকে ৩-০ ব্যবধানের জয়ী ঘোষণা করা হয়েছিল।

যমুনা অনলাইন: এফএইচ









Leave a reply