সোনালী সেনের গল্পগ্রন্থ ‘কন্যাকাহন’

|

নারী মনের অন্দরমহল আর লড়াইয়ের গল্প নিয়ে অমর একুশে গ্রন্থমেলায় প্রকাশিত হয়েছে সোনালী সেনের প্রথম গল্পগুচ্ছ ‘কন্যাকাহন’। এটি প্রকাশ করেছে পাঞ্জেরী প্রকাশনী। মূল্য ১৪০ টাকা। অবশ্য, মেলা থেকে এটি ১০৫ টাকায় সংগ্রহ করা যাবে।

লেখক জানালেন,’কন্যাকাহনের’ গল্পগুলোতে নারীর না বলা নানা কথা তুলে ধরা হয়েছে। জীবনের রঙ্গমঞ্চে সমাজে পরিবারে বিভিন্ন বয়সে নারীকে বিভিন্ন আঙ্গিকে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করতে হয়। কখনও কন্যা, কখনও প্রেমিকা, কখনও জায়া আবার কখনও বা মাতৃত্বের মূর্ত প্রতিচ্ছবি হিসেবে।
গল্পগুচ্ছের প্রতি ছত্রে ছত্রে নারী জীবনের না বলা কথাগুলোই প্রতিধ্বনিত হয়েছে।

সোনালী সেন পেশায় পুলিশ কর্মকর্তা। কাজ করছেন খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার হিসেবে। পুলিশ হিসেবে সমাজ আর নারীর অবস্থান যে চোখে দেখেছেন তাই তুলে এনেছেন ‘কন্যাকাহন’র পাতায় পাতায়।

কন্যাকাহন-এ একটি গল্প সীমন্তী নামের সদ্য কিশোরী মেয়েটির, যে কিনা জীবনের অর্থ খুঁজে না পেয়ে আত্মহত্যা করেছে। এ গল্প সম্পর্কে লেখকের ভাবনা, আমরা সাদা চোখে সুইসাইড বলতে যা বুঝি তা আসলে মার্ডার, কোল্ড ব্লাডেড মার্ডার। অথচ, আমরা হত্যা করে চলি আমাদের সন্তানদের শৈশবকে, আমরা হত্যা করি সহজ, স্বাভাবিক সামাজিক সম্পর্কগুলোকে, আমরা হত্যা করি নিত্যদিনের ছোট ছোট ভাবনাগুলোকে।

বইয়ে রয়েছে অন্নদা নামের একজন অশীতিপর নিঃসঙ্গ বাল্যবিধবা বৃদ্ধার গল্প, যে কিনা জীবন সায়াহ্নে উপস্থিত হয়ে বুঝতে পারে পৃথিবীতে কতখানি অনাকাঙ্ক্ষিত সে। সারা জীবনের সংগ্রাম আর ত্যাগের বিনিময়ে প্রতিষ্ঠিত সন্তানদের অবহেলা আর উদাসীনতা যাকে প্রতিনিয়ত এফোঁড় ওফোঁড় করে দেয়। নিজের দীর্ঘ আয়ু নিয়ে বিব্রত এই মা অভিশাপ দেয় না নিজ আত্মজদের, বরং শেষ নিঃশ্বাসে ধারণ করে সন্তানের প্রতি নিরন্তর শুভকামনা।

একটি গল্পে তুলে ধরা হয়েছে তনিমা নামের এক কর্মজীবী মায়ের কর্মক্ষেত্র ও সংসারের জটিল রোজনামচা। রয়েছে হূরজান নামের এক গ্রাম্য বালিকার গল্প। ‘রংধনুবেলা’ গল্পটিতে উঠে এসেছে স্বামী পরিত্যক্তা নাদিয়া জামানের দুই সন্তানকে নিয়ে সাবলম্বী হয়ে ওঠার কাহিনী।

এমনই অনেক গল্পের চরিত্রের সাথে পরিচিত হতে ঢু মেরে আসতে পারেন পাঞ্জেরীর স্টলে।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply