সিরিয়ায় সর্বাত্মক যুদ্ধের শঙ্কা তৈরি হয়েছে: ইরানের মন্ত্রী

|

ইরানের উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্বাস আরাগচি বলেছেন, সিরিয়ার পরিস্থিতি খুবই জঠিল আকার ধারণ করেছে, এবং সেখানে সর্বাত্মক যুদ্ধের শঙ্কা তৈরি হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার আব্বাস বিবিসি’কে বলেন, ‘আমাদের অঞ্চলে (মধ্যপ্রাচ্য) সর্বত্র যুদ্ধে শঙ্কা বিরাজ করছে।’ সিরিয়ায় ইরানি বেশ কিছু অবস্থানে হামলার দাবির এক সপ্তাহের ব্যবধানে আব্বাস এ কথা বললেন।

গত সপ্তাহে ‘ইরানি একটি ড্রোন’ ইসরায়েলের আকাশসীমায় প্রবেশে এবং সেটিকে ভূপাতিত করার জেরে ইসরায়েলি এফ১৬ যুদ্ধবিমান সিরিয়ান বাহিনী কর্তৃক বিধ্বস্ত করার পর ইসরায়েল পাল্টা হামলা চালায়। তবে আব্বাস আরগাচি সেই ড্রোনটি ইরানের নয় বলে দাবি করেছেন।

এদিকে আব্বাসের এই বক্তব্যের দুই দিন আগে সিরিয়ার আফরিনে তুরস্কের সেনাবাহিনীর মুখোমুখি হতে বাশার আল আসাদের অনুগত বাহিনী পৌঁছেছে। সেখানে বড় ধরনের সংঘাতের শঙ্কা দেখছেন বিশ্লেষকরা।

সিরিয়ায় তার দেশের উপস্থিতির পক্ষে যুক্তি দিয়ে ইরানের উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা যদি সিরিয়া ইস্যুতে সক্রিয় না হতাম, তাহলে আজ দামেস্কে আইএস থাকতো। এমনকি বৈরুত (লেবানন) এবং অন্যান্য স্থানেও হয়তো তারা ছড়িয়ে পড়তো।

আব্বাস বলেন, ইরান সিরিয়া ইস্যুতে জড়িয়েছে সন্ত্রাসবাদ দমনের জন্য, ইসরায়েলের সাথে যুদ্ধের জন্য নয়।

যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে পারমাণবিক চুক্তি বাতিলের দাবির বিষয়ে তিনি বলেন, ওরা তো প্রতিদিনই চুক্তির লঙ্ঘন করছে। তবে এই চুক্তি যুক্তরাষ্ট্র ছাড়া টিকে থাকা সম্ভব নয় বলেও মনে করেন এই কূটনীতিক।

তিনি আরও বলেন, চুক্তির পরও ইরানের ওপর থেকে আর্থিক নিষেধাজ্ঞা উঠিয়ে না নিলে চুক্তি থেকে নিজেদের সরিয়ে নেবে তেহরান। অর্থনৈতিক কোনো সুবিধা না পেলে চুক্তিবদ্ধ থেকে লাভ নেই।

(সূত্র: বিবিসি)।

 









Leave a reply