মুরগি সংকটে দোকান বন্ধ, ক্ষমা চেয়েছে কেএফসি

|

ব্রিটেন জুড়ে বিক্রয়কেন্দ্রগুলো বন্ধ করে দিতে বাধ্য হওয়ায় ক্ষমা চেয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক ফ্র্যাঞ্জাইজি কেএফসি। মুরগি সরবরাহকারী কোম্পানি ডিএইএল-এর সঙ্গে সৃষ্ট তিক্ততার কারণে এই সংকট দেখা দিয়েছে।

যুক্তরাজ্যের মেট্রো পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিয়ে ক্ষমা চেয়েছে বিশ্বব্যাপী ভাজা মুরগি বিক্রয়কারী প্রতিষ্ঠানটি। জনসংযোগ সংকট ব্যবস্থাপনা সংশ্লিষ্টরা এই বিজ্ঞাপনের পরিস্ফুটন নিয়ে বেশ প্রশংসা করেছেন। তারা ওই বিজ্ঞাপনটিকে ‘মাস্টার ক্লাস’ হিসেবে অভিহিত করেছেন।

পত্রিকার পুরো পৃষ্ঠা জুড়ে থাকা ওই বিজ্ঞাপনে একটি খালি বাকেট দেখা যাচ্ছে। বাকেটের গায়ে কোম্পানির লোগোটিও উল্টো করে ‘এফসিকে’ লেখা হয়েছে।

null

নিচে লেখা রয়েছে, “ক্রেতাদের কাছে আমরা ভীষণভাবে ক্ষমা চাচ্ছি। বিশেষত, যারা কষ্ট করে এসে দেখেছেন আমাদের দোকানগুলো বন্ধ। সংকট উত্তরণে ক্লান্তিহীনভাবে কাজ করার জন্য কেএফসি’র কর্মী ও ফ্র্যাঞ্জাইজি অংশীদারদের অসংখ্য ধন্যবাদ।”

এতে আরও লেখা রয়েছে, “বিভীষিকাময় এক সপ্তাহ পার হতে চললো। অবস্থার উন্নতি ঘটছে। প্রতিদিনই রেস্টুরেন্টগুলোতে মুরগির সরবরাহ আরও বেশি করে বাড়ানো হচ্ছে। আমাদের সাথে কষ্ট করে থাকার জন্য আপনাদেরকে ধন্যবাদ।”

ব্রিটেন জুড়ে নয় শ’ টির মধ্যে সাত শ’ টি বিক্রয়কেন্দ্র বন্ধ করে দিতে তারা বাধ্য হয়েছে। খোলা থাকা বাকি বিক্রয়কেন্দ্রগুলো হয় অন্যান্য খাবার দিচ্ছে অথবা তুলনামূলক কম সময়ে জন্য খোলা রাখছে।

কেএফসি জানিয়েছে, বিদ্যমান সংকট আরও এক সপ্তাহ স্থায়ী হতে পারে। তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে কাজ চলছে বলে জানিয়েছে কোম্পানিটি।

যমুনা অনলাইন: এফএইচ









Leave a reply