শ্রীদেবীর মৃত্যু: বনি কাপুরের পাসপোর্ট জব্দ

|

শ্রীদেবীর মৃত্যকে ঘিরে সৃষ্ট রহস্য আরও ঘনীভূত হতে যাচ্ছে বলা যায়। আজ মঙ্গলবার আবারও বনি কাপুরকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দুবাই পুলিশ। এ নিয়ে তৃতীয়বারের মতো তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হল। এ সময় তার পাসপোর্টও জব্দ করা হয়েছে।

প্রাথমিকভাবে মৃত্যুর কারণ হিসেবে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে যাওয়ার ঘটনা বলা হলেও ময়না তদন্তের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে ভিন্ন কথা!

সোমবার দুবাই পুলিশের দেওয়া ময়না তদন্ত প্রতিবেদন অনুসারে, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যাননি শ্রীদেবী। তিনি মাথা ঘুরে বাথটাবে পড়ে যান, বাথটাবের পানিতে ডুবে তার মৃত্যু ঘটেছে।

ময়না তদন্তের এই প্রতিবেদন পাওয়ার পর ধরে নেওয়া হয়েছিল, যাক শেষ পর্যন্ত সৃষ্ট রহস্যের একটা কূল-কিনারা পাওয়া গেল। বিধিবাম দুবাই পুলিশ এখানে থামতে নারাজ। তারা বিষয়টিকে বেশ গুরুত্ব সহকারে নিয়েছে।

শ্রীদেবীর মৃত্যুর ‘রহস্য’ সমাধানে রীতিমতো মাঠে নেমেছে দুবাই পুলিশের চৌকস তদন্ত দল। সোমবার রাতে সকল আইনি প্রক্রিয়া শেষে নিজ ভূমে স্বামী বনি কাপুরের নিকট আত্মীয় অনিল আম্বানির নিজস্ব বিমানে শ্রীদেবীর মরদেহ ফেরত আসার কথা ছিল। তদন্তের ঘন ঘটায় সব আইনি প্রক্রিয়া শেষ না হওয়ায় তা শেষ পর্যন্ত হয়নি।

দুবাইয়ের আইন অনুসারে, কেউ হোটেলে মারা গেলে তার ময়না তদন্ত করতে হয়। সে জন্য শ্রীদেবীর ময়না তদন্ত করা হয়েছে। ময়না তদন্তে দূর্ঘটনা জনিত মৃত্যু বলা হলেও মামলা দায়ের করেছে দুবাই পুলিশ।

এবার শ্রীদেবীর স্বামী বনি কাপুরের পাসপোর্ট জব্দ করায় বিষয়টি আরও রহস্যাবৃত হয়ে উঠেছে। পাসপোর্ট জব্দ করা ফলে তিনি সহসাই দুবাই ছেড়ে যেতে পারবেন না।

শেষ পর্যন্ত কেঁচো খুঁড়তে সাপ বেরোয় কি না- একমাত্র সময়ই তা বলে দিতে পারে!

যমুনা অনলাইন: এফএইচ









Leave a reply