অস্ত্র বিরতির মধ্যেই হামলা, প্রাণ গেলো আরও এক শিশুর

|

পাঁচ ঘণ্টার অস্ত্র বিরতির কথা থাকলেও চার ঘণ্টা পরই ঘৌতায় বিমান হামলা চালিয়েছে সিরিয়ান সরকার বাহিনী। হামলায় একজন শিশু নিহতসহ কমপক্ষে ৭জন আহত হয়েছে। সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস মনিটরিং গ্রুপ এই তথ্য জানায়।
 
গত এক সপ্তাহ ধরে ঘৌতায় সিরিয়ান সরকার বাহিনীর বিমান হামলা পর এই্ অস্ত্র বিরতির ঘোষণা করা হয়। স্থানীয় সকাল ৯টা থেকে পাঁচ ঘণ্টার অস্ত্র বিরতির সমঝোতা হয়। এসময় সাধারণ নাগরিকসহ যারা আহত তারা ঘৌতা ত্যাগ করার সুযোগ পাবে। কিন্তু অস্ত্র বিরতির চার ঘণ্টা পরই হামলা চালায় সিরিয়ান সরকার বাহিনী।

এদিকে চরম নির্মমতার শিকারে গত ৭ দিনে ঘৌতায় প্রাণ গেছে প্রায় দেড়শ’ শিশুর। গেল ৭ দিনের টানা বিমান হামলায় আক্ষরিক অর্থেই ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়েছে ঘৌতা শহরটি। গুঁড়িয়ে গেছে প্রায় সব স্থাপনা। আবাসিক ভবন থেকে শুরু করে, বাদ যায়নি স্কুল আর হাসপাতালও। ধ্বংসস্তুপ সরালেই বেরিয়ে আসছে মরদেহ; বেশিরভাগই শিশুদের।
 
২০১১ সিরিয়া সংঘাত শুরুর পর এখন পর্যন্ত প্রাণ গেছে ৪ লাখ মানুষের। এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য সংখ্যকই শিশু। শরণার্থী অন্তত ২৩ লাখ আর অবরুদ্ধ শিশুর সংখ্যা প্রায় ৩ লাখ। ২০১৬ সালের পর দেশটিতে শিশুমৃত্যুর হার বেড়েছে প্রায় ২৫ শতাংশ।









Leave a reply