অস্কারের আসরে চোখ রাখুন পাঁচটি বিষয়ে

|

কয়েক ঘণ্টা বাকি মাত্র। এরপরই বসবে চলচ্চিত্র জগতের অন্যতম সেরা ও সবচেয়ে জনপ্রিয় পুরস্কারের আসর অস্কার ২০১৮। তাবৎ বিশ্বের সিনেমা প্রেমীরা মুখিয়ে আছেন এই আয়োজনের জন্য।

‘দ্য শেপ অব ওয়াটার’ আর ‘থ্রি বিলবোর্ড আউটসাইড এবিং, মিসৌরি’-র মধ্যকার সেরা চলচ্চিত্র পুরস্কারটি জয়ের দ্বৈরথ দেখতে বেশ একটা রোমাঞ্চকর আবেশ নিয়েই অপেক্ষায় রয়েছেন সবাই। কে জিতবে শেষ পর্যন্ত, এবারের সেরা সিনেমার তকমাটা!

কিন্তু হলিউডের সবচেয়ে উজ্জ্বল এবং তারকাখচিত এই রাতে কোনো কিছুই আগে থেকে অনুমান করার ঝুঁকি না নেওয়াই ভালো। সে যাই হোক; আসুন দেখে নেই, বছরজুড়ে উন্মুখ হয়ে থাকা এই তারা ভরা রাতে কোন পাঁচটি বিষয়ে চোখ রাখবেন।

আবারও ‘এনভেলপগেট’-এর আশঙ্কা

গত আসরের কথা মনে আছে তো? অস্কারের ইতিহাসে সম্ভবত সবচেয়ে লজ্জাজনক অধ্যায়। হয়তো ভুলে যেতে পারেন, নিত্য দিনের বিভিন্ন ঘটনা প্রবাহে। কোনো সমস্যা নেই, মনে করিয়ে দিচ্ছি।

পুরো আসর জুড়ে সবার চোখ আটকে থাকে এনভেলাপে। সেই এনভেলাপ খুলে ‘লা লা ল্যান্ড’-কে সেরা চলচ্চিত্র ঘোষণা দেওয়া হয়। কিন্তু পরমুহূর্তেই ধরা পড়ে ভুলটি। সেরা চলচ্চিত্রের পুরস্কার পাবে ‘মুনলাইট’। অমন বড় আসরে এমন ভুল ঘটতে পারে, সেটা চোখের সামনে না ঘটলে কেউ হয়তো বিশ্বাস করবেন না।

জুরিদের সবার ভোট গুণে ফলাফল তৈরি করে বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ আর্থিক প্রতিষ্ঠান প্রাইসওয়াটার কুপার্স। কিন্তু পুরস্কার ঘোষণার সময় প্রতিষ্ঠানটির প্রতিনিধি মঞ্চে উপস্থিত ওয়ারেন বিটি এবং ফে ডানাওয়ের হাতে ভুল খামটি তুলে দিয়েছিলেন।

এই ধরনের ভুল এবারও হবে কি? চোখ বড় বড় করে তাকিয়ে থাকুন আজ রাতের অস্কার পুরস্কারের অাসরে।

মনোয়ন ও পুরস্কার প্রাপ্তির

স্নায়ু যুদ্ধকালীন ভালোবাসার রূপক গল্পের সিনেমা ‘দ্য শেপ অব ওয়াটার’ ১৩টি ময়োনয়ন পেয়েছে। অপরদিকে নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী ‘থ্রি বিলবোর্ড আউটসাইড এবিং, মিসৌরি’ পেয়েছে ৭টি মনোয়ন।

পুরস্কারের দৌড়ে মার্টিন ম্যাকডোনাগ-এর ‘থ্রি বিলবোর্ড আউটসাইড এবিং, মিসৌরি’ কিছুটা পিছিয়ে থাকলেও শেষ দিকে এসেছে বেশ ভালোই লড়ছে ‘দ্য শেপ অব ওয়াটার’-এর সঙ্গে।

অস্কার পুরস্কার প্রাপ্তির সম্ভাব্যতা ঘোষণাকারী প্রতিষ্ঠান গোল্ড ডার্বি জানিয়েছে, ‘দ্য শেপ অব ওয়াটার’-এর সঙ্গে ব্যবধান ২/১ থেকে ১৩/১০-এ কমিয়ে এনেছে ‘থ্রি বিলবোর্ড আউটসাইড এবিং, মিসৌরি।’

সেরা চলচ্চিত্র পুরস্কারের দৌড় কি এ দুই সিনেমাতেই শেষ? এতটা নিশ্চিত করে কেউ বলতে পারবে না; অস্কার বলে কথা! সুতরাং সেরা চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া বিষয়ক আপনার তালিকা থেকে ‘গেট আউট,’ ‘লেডি বার্ড,’ এবং ‘ডানকার্ক’ সিনেমাকে বাদ দেওয়া কি ঠিক হবে? আপনিই ভেবে দেখুন।

#মি টু এবং টাইমস আপ

চলতি বছর এ অবধি যতগুলো বড় বড় ও বহুল জনপ্রিয় পুরস্কারের আসর বসেছে তার সবকটিতে #মি টু ও টাইমস আপ আন্দোলনের বলিষ্ঠ উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে।

অস্কার আসরে এ ধরনে কোনো আয়োজনের কথা আনুষ্ঠানিকভাবে জানা না গেলেও কিছু অভিনেত্রী জানিয়েছেন, #মি টু আন্দোলনকে সমর্থনে তারা আবারও কালো পোষাক পরবেন রবিবাসরীয় সন্ধ্যায়।

বিরল ঘটনা ও নতুনের কেতন

মুহুর্মুহু চিৎকারে অস্কারের পুরো হল ঘরটি যদি অনুনাদে কেঁপে ওঠে, তবে আশ্চর্য হবেন না। এ ধরনের বেশ কিছু বিরল ও নতুনের কেতন ওড়ার জয়ধ্বনি এই অস্কারে দেখার সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে।

সেরা রূপান্তরিত চিত্রনাট্যের জন্য প্রথমবারের মতো কৃষ্ণাঙ্গ নারী হিসেবে মনোনয়ন পেয়েছেন ‘মাডবাউন্ড’ সিনেমার পরিচালক ডি রিস। একই সিনেমার ফটোগ্রাফি বিষয়ক পরিচালক র‌্যাচেল মরিসন প্রথম নারী হিসেবে সেরা সিনেমাটোগ্রাফি বিভাগে মনোনয়ন পেয়েছেন ।

এখানেই শেষ নয়, ‘মাডবাউন্ড’ সিনেমার জন্য ম্যারি জে ব্লা্ইজ দু’টি মনোনয়ন পেয়েছেন। তিনি প্রথম ব্যক্তি যিনি একই সঙ্গে অভিনয় ও সেরা মৌলিক গানের জন্য মনোনয়ন পেলেন। পুরস্কার পেলেও আশ্চর্য হওয়ার মতো কিছু ঘটবে কি? আপনার কি মনে হয়?

‘স্ট্রং আইল্যান্ড’ সিনেমার জন্য প্রথম ট্রান্সজেন্ডার ব্যক্তি হিসেবে সেরা পরিচালকের মনোনয়ন পেয়েছেন ইয়ার্ন ফোর্ড। জর্ডান পেলে ‘গেট আউট’ সিনেমার জন্য প্রথমবারের মতো কোনো কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তি হিসেবে একই সাথে পরিচালনা, কাহিনী, এবং প্রযোজনা বিভাগে মনোনয়ন পেয়েছেন।

তিনিসহ এ অবধি পাঁচ জন কৃষ্ণাঙ্গ সেরা পরিচালকের মনোনয়ন পেয়েছেন। তারা হলেন, জন সিঙ্গেলটন, লি ডেনিয়েলস, স্টিভ ম্যাককুইন, এবং ব্যারি জেনকিন্স। এবারের আসরে জর্ডানের সামনে রয়েছে কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তি হিসেবে প্রথমবারের মতো সেরা পরিচালকের পুরস্কারটি জয়ের সুযোগ।

অস্কোরের ইতিহাসে গ্রেটা গারউইগ (লেডি বার্ড) পঞ্চম নারী হিসেবে সেরা পরিচালকের মনোনয়ন পেয়েছেন, অভিষেক সিনেমাতেই সেরা পরিচালকের মনোনয়ন পাওয়া প্রথম নারী।

উপস্থাপক কিমেল-এর অগ্নি পরীক্ষা

কৌতুক অভিনেতা এবং লেট-নাইট শো-এর উপস্থাপক জিমি কিমেল পর পর দ্বিতীয়বারের মতো অস্কার পুরস্কারের আসরে সঞ্চালকের দায়িত্ব পালন করবেন। সমালোচকরা তক্কে তক্কে আছেন, #মি টু হয়রানির শিকার ব্যক্তিদের প্রতিবাদী উপস্থিতির সাথে কীভাবে হাস্যকৌতুক মিশিয়ে পুরো আয়োজনটিকে প্রাণবন্তভাবে এগিয়ে নিয়ে যান।

খেলার পরেই তিন থেকে চার ঘণ্টাব্যাপী এই অনুষ্ঠানটি পুরো মার্কিন মুল্লুক জুড়ে প্রতিবছর সবচেয়ে বেশি সংখ্যক মানুষ দেখে থাকে। শুধু মার্কিন মুল্লুক নয়, পুরো বিশ্বের তাবৎ সিনেমাপ্রেমিও তাকিয়ে থাকেন।

দেখবেন কি এবারের অস্কার আসর? আজ রাতেই কিন্তু!

যমুনা অনলাইন: এফএইচ









Leave a reply