শফিকুলকে উল্টো করে ঝুলায় গ্রাম পুলিশ মোজাফ্ফর

|

স্টাফ রিপোর্টার, নওগাঁ:

চোর সন্দেহে হাটের মধ্য থেকে ধরে এনে দড়ি দিয়ে শফিকুলের দুই পা বাঁধে আকবরপুর মোজাফ্ফর। এরপর বাঁশে উল্টো করে ঝুলিয়ে লাঠি দিয়ে উপর্যুপরি মারপিট করে নূরনবী।

আটকের পর পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা উভয়ে শফিকুলকে নির্যাতনের কথা স্বীকার করেছে। আজ সোমবার পত্নীতলা থানার ওসি মাজাহার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নির্যাতনকারী নূরনবী আকবরপুর ইউনিয়নের তথ্যসেবা কেন্দ্রের উদ্যেক্তা। একই ইউনিয়ন পরিষদে দায়িত্বরত ছিলেন গ্রামপুলিশ মোজাফ্ফর ।

ওসি জানান, রোববার বিকেলে উদ্ধার করা হলে নির্যাতিত শফিকুল বাদি হয়ে নূরনবী ও মোজাফ্ফরসহ ৪ জনকে আসামি করে নির্যাতনের অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের করেন। চিকিৎসার জন্য শফিকুলকে বিকালেই পত্নীতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

এদিকে আটক নূরনবী ও মোজাফ্ফরকে আদালতের মাধ্যমে জেল-হাজতে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন ওসি।

গত শুক্রবার পত্নীতলার মধইল হাটে টাকা চোর (পকেটমার) সন্দেহে শফিকুলকে আটক করে স্থানীয় কয়েকজন। পরে তাকে আকবরপুর ইউনিয়ন পরিষদের সামনে নিয়ে গিয়ে উল্টো করে ঝুলিয়ে নির্যাতন চালায় নূরনবী, মোজাফ্ফরসহ তাদের
সহযোগীরা।

শনিবার রাতে ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে রোববার সকালে ঘটনা খতিয়ে দেখতে মাঠে নামে পুলিশ।

নির্যাতনের মামলায় গ্রেফতার নূরনবী ও মোজাফফর









Leave a reply