ভারতীয় দূতাবাসের টেলিফোন ব্যবহার করে প্রতারণা

|

ভারতীয় দূতাবাসের টেলিফোন ব্যবহার করে আর্থিক প্রতারণার মতো অভিনব ঘটনা ঘটেছে খোদ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। সন্দেহজনক যে কোনো ধরনের ফোনের বিষয়ে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছে ভারতীয়দের দূতাবাস।

সোমবার হিন্দুস্তান টাইমসের প্রকাশিত এক প্রতিবেদন থেকে এ তত্য জানা যায়। ওয়াশিংটনে অবস্থিত ভারতীয় দূতাবাস বিষয়টি মার্কিন সরকারকে অবহিত করেছে। পাশাপাশি নিজেদের মতো করে এ প্রতারণার বিষয়ে অভ্যন্তরীন তদন্ত শুরু করেছে ভারত।

এক পরামর্শ বার্তায় ভারতীয় দূতাবাস জানিয়েছে, “প্রতারকরা ক্রেডিট কার্ডসহ বিভিন্ন ব্যক্তিগত তথ্য চুরি করছে। অথবা দূতাবাসের কর্মকর্তা সেজে পাসপোর্ট, ভিসা ফর্ম, অভিবাস ফর্ম ইত্যাদিতে ভুল আছে- এমনটি জানিয়ে তা সংশোধনে ভারতীয় নাগরিকদের কাছে অর্থ চাইছে। এমনকি ওই ভুলগুলো সংশোধন না করলে যুক্তরাষ্ট্র থেকে বের করে দেওয়াসহ কারাদণ্ড হতে পারে বলেও জানাচ্ছে প্রতারকরা।”

প্রতারণা শিকার কিছু ভারতীয় নাগরিক দূতাবাসকে জানালে ভারতীয় কর্তৃপক্ষে নজরে আসে বিষয়টি। কিছু ফোন কলে ভারতীয় দূতাবাসের নাম্বার ব্যবহার করা হচ্ছে বা দূতাবাসের পরিচায় ব্যবহার করা হচ্চে।

কিছু কিছু ক্ষেত্রে ওই তথ্য দূতাবাস থেকে পেয়েছে বলেও প্রতারকরা বিভিন্ন ভারতীয় জানিয়ে তাদের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে বা নেওয়া চেষ্টা চালাচ্ছে।

ওই পরামর্শ বার্তায় ভারতীয় দূতাবাস আরও জানিয়েছে, দূতাবাসের কোনো কর্মকর্তা টেলিফোন কলের মাধ্যমে ভারতীয় কিংবা বিদেশি, কারও ব্যক্তিগত তথ্য জানতে চায় না। বাড়তি তথ্যের প্রয়োজন হলে তারা শুধু ইমেইলের মাধ্যমে সেটা জানতে চায়।

কোনো ধরনের ব্যক্তিগত তথ্য ফোনে প্রকাশ না করার জন্যও পরামর্শ বার্তায় আহবান জানিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থিত ভারতীয় দূতাবাস।

প্রথমবারের মতো ভারতীয় দূতাবাসের ক্ষেত্রে এটি ঘটনা ঘটলেও এ ধরনের প্রতারণা ঘটনা মার্কিন দেশে নতুন নয়। মার্কিন সরকারের কর্মকর্তাদের তথ্য অনুসারে, অতীতে এ ধরনে প্রতারণার ঘটনা অন্যান্য কূটনৈতিক মিশন, বিশেষত ইউরোপের দেশগুলো ক্ষেত্রে ঘটেছে।

কর্মকর্তারা বলছেন, প্রতারণার প্রযুক্তি সহজলভ্য হলেও আসল ফোন নাম্বার ব্যবহার করে তা করা বেশ কঠিন। ভারতীয় কল সেন্টারগুলো থেকে যুক্তরাষ্ট্রের রাজস্ব কর্তৃপক্ষের নামে মার্কিন নাগরিকরা প্রায়ই এ ধরনের প্রতারণার শিকার হয়ে থাকেন। একাধিক যৌথ অভিযানে গত বছর ভারতীয় কর্তৃপক্ষ এ ধরনের প্রতারণার সঙ্গে জড়িত বেশ কিছু লোককে গ্রেপ্তার করেছিল।

যমুনা অনলাইন: এফএইচ









Leave a reply