কাতারের পক্ষে কথা বলায় টিলারসনকে সরাতে লবিং করেছিল আমিরাত!

|

সৌদি আরব ও তার মিত্রদের সাথে কাতারের চলমান দ্বন্দ্বে দোহার পক্ষে দাঁড়ানোয় মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে তার পদ থেকে সরিয়ে দিতে জোর লবিং চালিয়েছিল সংযুক্ত আরব আমিরাত। ফাঁস হওয়া এক ইমেইল বার্তা অবলম্বনে বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ইলিয়ট ব্রোয়ডি নামে ট্রাম্পের ঘণিষ্ঠ এবং তার প্রেসিডেনশিয়াল ক্যাম্পেনে কাজ করা একজনকে দিয়ে এই লবিং করিয়েছিল আরব আমিরাত। গত বছরের অক্টোবরে ইলিয়ট ট্রাম্পের সাথে দেখা করে বলেন, ‘টিলারসনের পারফরমেন্স ভাল না। তাকে সময় সুযোগ মতো সরিয়ে দিতে হবে।’

ইলিয়টের একটি বেসরকারি নিরাপত্তা কোম্পানির মালিক। এই কোম্পানির সাথে সংযুক্ত আরব আমিরাতের কয়েকশ’ মিলিয়ন ডলারের চুক্তি রয়েছে।

গত বছরের জুন মাসে সৌদি আরব, আরব আমিরাত, বাহরাইন, মিশর ও ইয়েমেন প্রতিবেশি কাতারের ওপর স্থল-জল ও আকাশ পথে অবরোধ আরোপ করে। একই সাথে সব ধরনের সম্পর্ক বন্ধ ঘোষণা করে। এতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সায় থাকলেও পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন তাৎক্ষণিকভাবে কাতারের ওপর অবরোধ আরোপের নিন্দা জানান।

ইলিয়ট ব্রোয়ডি ট্রাম্পের সাথে তার আলাপচারিতা নিয়ে আরব আমিরাতের সেনাপ্রধান ও যুবরাজ মোহাম্মদ বিন জায়েদের উপদেষ্টা লেবাননের ব্যবসায়ী জর্জ নাদেরকে ইমেইল পাঠিয়েছিলেন। সেই ইমেইল ফাঁস হলে বিবিসি তা নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে।









Leave a reply