বিজেএমসি নিয়ে অর্থমন্ত্রীর ক্ষোভ, পাট প্রতিমন্ত্রীর আক্ষেপ

|

লোকসানে থাকা সরকারি প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ পাটকল করপোরেশন (বিজেএমসি) বন্ধ করে দেয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

আজ বুধবার দুপুরে সচিবালয়ে এক অনুষ্ঠানে প্রতিষ্ঠানটির প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করে অর্থমন্ত্রী বলেন, এরা আসলে কী করছে? হোয়াট দ্য ব্লাডি হেল ইটস ডুয়িং? মন্ত্রণালয়ে সমন্বয়ের জন্যে একটা সেল থাকবে, তারাই সব দেখবে।

অন্যদিকে অর্থমন্ত্রণালয়ের এমন অবস্থানে সন্তুষ্ট নন বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম। আজ সকালে পাট শিল্পের উন্নয়ন নিয়ে এক সেমিনারে তিনি আক্ষেপ করে বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আগ্রহ থাকলেও অর্থমন্ত্রণালয়ের অসগযোগিতার কারণে কৃষি প্রক্রিয়াজাত পণ্যের তালিকায় পাট পণ্যের অন্তর্ভূক্তি দুই বছর ধরে ঝুলে আছে।

তবে খুব শিগগিরই এর সমাধান হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

ঢাকা চেম্বার আয়োজিত সেমিনারে বক্তারা বলেন, বিশ্বে পাটের ব্যবহার বাড়ছে। এ কারণে সম্ভাবনার দ্বার উন্মুক্ত হচ্ছে পাট শিল্পের। এটি কাজে লাগাতে বিনিয়োগ বাড়ানোর কথা বলেন উদ্যেক্তারা। এজন্য ব্যাংকগুলোকে এগিয়ে আসার আহবান জানান তারা।

অনুষ্ঠানে পাট প্রতিমন্ত্রী বলেন, অতীতের সরকারগুলোর অসহযোগিতার কারণে পাট শিল্পের উন্নয়ন সম্ভব হয়নি। বিশ্বব্যাংকের পরামর্শে তারা এ শিল্পকে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে গিয়েছিল। এটিকে পুনরোজ্জীবিত করতে কাজ করছে বর্তমান সরকার। এ জন্য অর্থমন্ত্রণালয়ের সক্রিয় সহযোগিতা দরকার বলে মনে করেন তিনি।

এর আগে গত সোমবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে ‘পাটের উন্নয়ন : গণমাধ্যমের ভাবনা’ শীর্ষক এক গোলটেবিলে মির্জা আজম বলেছিলেন, পাট নিয়ে অর্থমন্ত্রী নেতিবাচক মনোভাব পোষণ করেন। তার নেতিবাচক মনোভাবের প্রভাব অর্থ মন্ত্রণালয়েও পড়েছে। ফলে পাটের বিকাশ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।









Leave a reply