ঢাকায় ১৯ মার্চ জনসভার ঘোষণা বিএনপির

|

আজ সোমবার ঢাকায় জনসভার অনুমতি চেয়েও না পাওয়ায় কোনো প্রতিবাদ কর্মসূচি না দিয়ে জনসভার নতুন তারিখ ঘোষণা করেছে বিএনপি। দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, অনেক আগে থেকে আবেদন করে রাখলেও সরকার আমাদেরকে আজ জনসভার অনুমতি দেয়নি। তাই আগামী ১৯ মার্চ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানেই আমাদের জনসভা হবে।

ফখরুল বলেন, সরকার বলছে জননিরাপত্তার জন্য সমাবেশ করতে দিচ্ছে না। কিন্তু অন্যান্য দল তো সমাবেশ করতে পারছে। আসলে এই সরকার জনবিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। তারা জনগণকে ভয় পায়।

তিনি আরও বলেন, আশংকার সঙ্গে লক্ষ্য করছি সব সাংবিধানিক অধিকার কেড়ে নিচ্ছে সরকার। বর্বরভাবে নেতাদের তুলে নিচ্ছে কর্মসূচি থেকে। যারাই কথা বলছে তাদের কারাগারে পাঠাচ্ছে। প্রতিবাদ করার সব পথ বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে। কেউ ছাড় পাচ্ছেনা, যারা বুদ্ধিজীবী তারাও লিখতে ভয় পায়। ত্রাস ছড়িয়ে একদলীয় শাসন প্রতিষ্ঠা করেছে আওয়ামী লীগ।

বিএনপি মহাসচিব জানান, আগামী ১৫ মার্চ চট্রগ্রামে, ৩১ মার্চ রাজশাহীতে এবং ২৪ মার্চ বরিশালে জনসভা করা হবে।

চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপির জনসভার জন্য অনুমতি দেয়নি পুলিশ। গতকাল রোববার বিকালে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) অবেদনটি নাকচ করে দেয়।

ডিএমপির পক্ষ থেকে বলা বলেছে, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপির জনসভার আবেদন বিবেচিত হয়নি। ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, জননিরাপত্তার জন্য অনুকূল নয় বিধায় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপির সমাবেশের আবেদন গ্রহণ করা যায়নি।

জনসভা সফল করতে ইতোমধ্যে সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করলেও শেষমেষ পুলিশের পক্ষ থেকে অনুমতি না পাওয়ায় হতাশা প্রকাশ করেন দলটির নেতারা। এর আগে গত ৭ মার্চ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে পুলিশের অনুমতি নিয়েই জনসভা করেছিল ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ।

 









Leave a reply