আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফিরছে পাকিস্তানে

|

নিজেদের মাঠে পাকিস্তান শেষ টেস্ট সিরিজ খেলেছিল সেই ২০০৯ সালে শ্রীলংকার সাথে। খেলোয়াড়দের গাড়িতে বন্দুকধারীদের হামলায় নিজেদের মাটিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট আয়োজন করতে পারছে না দেশটি।

সেই থেকে ঘরের মাঠে নানাভাবে চেষ্টা করে যাচ্ছে আন্তর্জাতিক খেলা আয়োজনের। এর অংশ হিসেবে নিজেদের মাঠে সর্বশেষ ২০১৭ সালের নভেম্বরে বিশ্ব একাদশের বিপক্ষে টি২০ ম্যাচ খেলেছিল পাকিস্তান। এর আগে ২০১৫ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ ও টি২০ সিরিজ খেলেছিল পাকিস্তান।

শ্রীলংকা ক্রিকেট দলে বাসে হামলাকারী

তবে ক্রিকেটারদের বাসে হামলার ওই ঘটনার পর এখনও পর্যন্ত কোনো টেস্ট খেলুড়ে দেশ পাকিস্তানের মাটিতে খেলতে যায়নি।

এ দিকে দ্বিতীয় ঘরের মাঠ বলে পরিচিত আরব আমিরাতে শারজাতেও খেলার পরিমাণ বেড়ে যাওয়া তারা পাকিস্তানে ঘরোয়া সব সিরিজ আয়োজনে অপারগতা প্রকাশ করেছে। তাই বিকল্প ভেন্যুর খোঁজে ইতিমধ্যে নেমে পড়েছে পাকিস্তান।

শ্রীলংকা দলকে বহনকারী বাসের গুলির চিহ্ন

তবে দর্শক তো বটেই দেশটি কর্তা ব্যক্তিদের জন্য স্বস্তির বিষয় হচ্ছে ধীরে হলেও ঘরের মাটিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরার লক্ষণ দেখা যাচ্ছে।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি), ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে তিনটি টি২০ ম্যাচ খেলবে পাকিস্তান। আগামী মাসে করাচিতে এ ম্যাচগুলো অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

হামলায় আহত শ্রীলংকার বোলার অজন্তা মেন্ডিস

পিসিবি চেয়ারম্যান জানান, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড করাচিতে খেলার বিষয়ে সম্মতি জানিয়েছে। পাশাপাশি দেশটির সঙ্গে ত্রিদেশীয় সিরিজ আয়োজনে পাঁচ বছর মেয়াদি চুক্তির বিষয়ে আলোচনা চলছে।

বাংলাদেশ, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও পাকিস্তানকে নিয়ে প্রথম বছরের সিরিজ আয়োজনের পরিকল্পনা রয়েছেন বলে জানিয়েছেন পিসিবি প্রধান নাজম শেঠি।









Leave a reply