ফেভারিট ভারতের বিপক্ষে মাথা উঁচু বাংলাদেশ

|

ত্রিদেশীয় নিদাহাস টুর্নামেন্ট ইতিমধ্যে সব রকমের উত্তাপই ছড়িয়েছে। মাঠে ও মাঠের বাইরে সেই উত্তাপ-উত্তেজনা নিয়ে আজ রোববার হতে যাচ্ছে ফাইনাল ম্যাচ-বাংলাদেশ বনাম ভারত।

ব্যাটিং উইকেটে রান তাড়া করে জেতাটা অধিকতর সহজ, অন্তত এই টুর্নামেন্টে তাই দেখা গেছে। টসে জিতলে দুই দলই চাইবে আগে বোলিং নিতে। ভারত তো অবশ্যই চাইবে। কেননা তাদের রয়েছে বেশ শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনঅাপ।

তবুও শেষ দুই জয় এবং সাকিব আল হাসান দলে ফেরায় অনেকটাই উজ্জীবিত বাংলাদেশ দল। অবশ্যই তারা জয়ের জন্য মাঠে নামবে। টসে জিতে বাংলাদেশ দল ব্যাটিং নিলে বোলিংয়ে মোস্তাফিজুর রহমান ও রুবেল হোসেনকে নিয়ে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের ক্রিজে আটকিয়ে রাখা ও সাজঘরে ফেরানো কঠিন দায়িত্ব। সাথে চমৎকার সঙ্গ দিতে হবে নিয়মিত ও অনিয়মিত স্পিনার বোলারদেরও।

ব্যাটিংয়ে উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান তামিম ইকবালকে তার মারকুটে দায়িত্বশীল ব্যাটিং করতে হবে, এবং যথা সম্ভব ব্যক্তিগত ইনিংসকে বড় করা। অপর উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান লিটন দাসকে খেলতে হবে ভারতীয় বোলাদের বিশেষত স্পিনার মনোবল গুঁড়িয়ে দ্রুত রান তুলকে। মধ্যভাগে মুশিকুর রহিম ও মাহমুদুল্লাহ ব্যাটিং ছন্দেই রয়েছেন, তারা তাদের দায়িত্ব কীভাবে পালন করতে হবে তা নিয়ে বলা অবকাশ নেই। পাশাপাশি সৌম্য সরকার ও লিটন দাসকে হতে হবে আরও বেশি দায়িত্বশীল।

তবে বাংলাদেশি ব্যাটসম্যানদের অবশ্যই ওয়াশিংটন সুন্দরের বিপক্ষে আলাদা পরিকল্পনা নিয়ে মাঠে নামতে হবে। পাশাপাশি বাংলাদেশের জন্য সাকিবের ব্যাটিং-বোলিংয়ের গুরুত্ব বলার অপেক্ষা রাখে না।

বাংলাদেশকে কম রানে বেঁধে ফেলতে দলটির স্পিনারা আগের ম্যাচের কৌশলই কাজে লাগাতে পারেন। কেননা, তাদের পেস আক্রমনের দায়িত্বে থাকা মোহাম্মদ সিরাজ, শার্দুল ঠাকুর, অল-রাউন্ডার বিজয় শঙ্কর একেবারেই নতুন।

স্পিনার ওয়াশিংটন সুন্দর গত ম্যাচেই তার সুন্দর বোলিং দেখিয়েছেন, তাও পাওয়ার প্লে-এর ওভারগুলোতে। পাশাপাশি অপর প্রান্তে লেগ স্পিনার যুবেন্দ্র চাহাল তাকে ভালো সঙ্গ দিয়েছিলেন।

নিয়মতি অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও অভিজ্ঞ মহেন্দ্র সিং ধোনিকে ছাড়া ভারতীয় দলে নেতৃত্বে থাকা রোহিত শর্মা বেশ ভালো ব্যাট করছেন। বাংলাদেশের সঙ্গে সর্বশেষ ম্যাচে ৬১ বলে ৮৯ রান করেছেন। তার সঙ্গে থাকা সুরেশ রায়না দ্রুততার সঙ্গে করেছেন ৪৭ রান। শেখর ধাওয়ান ও লোকেশ পালের মতো মারকুটে ব্যাটসম্যানের মধ্যভাগে রয়েছেন দিনেশ কার্তিক ও মনিষ পাণ্ডে।

ভারত সব দিক থেকে ফেভারিট। তবে শ্রীলংকার বিপক্ষে সর্বশেষ দুই ম্যাচে দুর্দান্ত খেলে জয় ছিনিয়ে অন্যরকম এক ফাইনালেরই আভাস দিচ্ছে বাংলাদেশ। অত্যন্ত আশা করতে দোষ কী?

যমুনা অনলাইন: এফএইচ









Leave a reply