অস্তিত্বের সংকটে পড়েছে ফেসবুক

|

অস্তিত্বের সংকটে পড়েছে ফেসবুক। ভাবছেন কোনো টুইস্ট করা নিউজ? সোমবার মাত্র এক দিনেই
৩ হাজার ৬০০ কোটি ডলার খোয়া গেছে বর্তমান বিশ্বের অন্যতম আলোচিত প্রতিষ্ঠান ফেসবুকের। বাংলাদেশি মুদ্রায় তা ২ লাখ ৯৫ হাজার ২০০ কোটি টাকারও বেশি! ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য বেহাত হওয়ার অভিযোগ ওঠার পর শেয়ারবাজারে ঠিক এই পরিমাণ বাজারমূল্য হারিয়েছে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমটি। ওয়ালস্ট্রিটে নড়বড়ে হয়ে গেছে ফেসবুকের অবস্থান।

বাজার বিশ্লেষকেরা বলছেন, ফেসবুকের বিরুদ্ধে এ ধরনের অভিযোগকে হালকাভাবে নেয়ার সুযোগ নেই। পাশাপাশি এমন অভিযোগে অস্তিত্বের সংকটে পড়েছে ফেসবুকও। প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানটির ওপর ব্যবহারকারীদের আস্থা কমে যেতে পারে। ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে ব্যবসায়িক সুনামও।


ফেসবুকের ওঠা বিরুদ্ধে নতুন অভিযোগের আদ্যোপান্ত:

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ ‘কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা’ নামের একটি প্রতিষ্ঠানের অ্যাপ ব্যবহারে অনুমতি দিয়েছিল। সেই অ্যাপের মাধ্যমে ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ করে ‘কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা’। নানা ধরনের স্বার্থে এ তথ্যগুলো ব্যবহার করা হয়। এমনকি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারের কাজে ব্যবহার হয়েছিল এসব তথ্য!

এ প্রক্রিয়ার সাথে সম্পর্কিত কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোবিজ্ঞানের অধ্যাপক আলেক্সান্ডার কোগান সম্প্রতি মুখ খোলায় প্রকাশ্যে এসেছে সবকিছু। ফেসবুকের এহেন কর্মকাণ্ড নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন বড় বড় রাষ্ট্রের বাঘা বাঘা রাজনীতিবিদরা। শুরু হয়ে গেছে তদন্ত। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে এ ঘটনাকে ‘অত্যন্ত উদ্বেগজনক’ বলে উল্লেখ করেছেন। কেমব্রিজ অ্যানালিটিকার লন্ডন কার্যালয়ে তল্লাশি চালানোর অনুমতি চেয়েছে দেশটির তথ্য সুরক্ষা কর্তৃপক্ষ।

যুক্তরাষ্ট্রের ডেমোক্রেটিক ও রিপাবলিকান দুই প্রধান রাজনৈতিক দলের সিনেটররা তথ্য নিরাপত্তা নিয়ে শুনানির কথা বলছেন। শুনানিতে ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গকে জিজ্ঞাসাবাদের দাবি উঠেছে।

তৃতীয় পক্ষের কাছে ফেসবুকের তথ্য পাচারের খবর ছড়িয়ে পড়ার পর গতকাল সোমবার ফেসবুকের শেয়ারের দামে ধস নামে। এক দিনেই ফেসবুকের শেয়ারের দাম কমেছে ৬ দশমিক ৭ শতাংশ! গত কয়েক বছরের মধ্যে যেকোনো প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম এতটা কমে যাওয়া নজিরবিহীন।

এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে আরও কিছু প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান। এ জগতের অন্যতম জায়ান্ট গুগলের শেয়ারের দাম কমেছে ৩ দশমিক ৫ শতাংশ, আমাজনের দাম কমেছে ২ দশমিক ৩ শতাংশ। বাদ পড়েনি মাইক্রোসফট কিংবা অ্যাপলও। মাইক্রোসফটের শেয়ারের দাম ২ দশমিক ২ শতাংশ কমেছে। প্রায় একই চিত্র অ্যাপলের ক্ষেত্রেও।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply