দূষণ ঠেকাতে ৫০ টন গাছ পুড়িয়ে মহাযজ্ঞ

|

পরিবেশ দূষণরোধে গাছ লাগানো, এবং এর বেড়ে উঠা নিশ্চিত করাই সবচেয়ে টেকসই পদ্ধতি বলে বিবেচিত হয়ে আসছে সবার কাছে। সেই গাছ পুড়িয়েই দূষণ ঠেকাতে মহাযজ্ঞের আয়োজন করা হয়েছে। তাও এক দুই মণ বা ৫০-১০০ কেজি নয়, পঞ্চাশ হাজার কেজি বা ৫০ টন আম গাছ পোড়াবেন পুরোহিতরা।

ভারতের উত্তর প্রদেশের মিরাটে আগামী রোববার থেকে নয় দিনব্যাপী এই মহাযজ্ঞ শুরু হবে। এর আয়োজক শ্রী অচ্যুতান্ডি মহাযজ্ঞ সমিতি।

শুধু গাছ নয়, মন্ত্র পাঠের সাথে সাথে পোড়ানো হবে ৬ হাজার কেজি চাল, ২ হাজার ৫ শত কেজি গুড়, ৫১ টিন দেশি ঘি, এবং ১২ হাজার কেজি তিল।

সমিতির সহ সভাপতি গিরীশ বনশলের দাবি করেন, যজ্ঞ করার মাধ্যমে চারপাশের বায়ূ শুদ্ধ হয়ে ওঠে। এতে বায়ুদূষণ উল্লেখযোগ্য পরিমাণ হ্রাস পাবে।

তিনি আরও বলেন, নাসার প্রতিবেদন পড়ুন। তাতে বলা হয়েছে, ভারতের ওপরেই ওজোন স্তর সবচেয়ে ভাল আছে। এই স্তরকে রক্ষা করা দরকার। এই মহাযজ্ঞ এ ব্যাপারে সাহায্য করবে।

এক সাধু দাবি, যজ্ঞে ধোঁয়ায় পরিবেশের ক্ষতি হয় না, একেবারে খাঁটি ধোঁয়া। এতে ব্যবহৃত সামগ্রী ও উচ্চারিত মন্ত্রের জন্য এটি ক্ষতিকর নয়।

এদিকে উত্তর প্রদেশের দূষণ নিয়ন্ত্রণ বোর্ড বলছে, এই মহাযজ্ঞের কারণে দূষণ আরও বাড়বে। কিন্তু এতে হস্তক্ষেপ করতে তারা রাজি নয়।

বোর্ড কর্মকর্তা আর কে ত্যাগী বলেন, বিপুল পরিমাণ কাঠ পোড়ানো হবে, এতে দূষণ তো হবেই। কিন্তু সুনির্দিষ্ট কোনো নীতিমালা না থাকায় এ বিষয়ে তদন্তের নির্দেশ দেওয়া যাচ্ছে না।

যমুনা অনলাইন: এফএইচ









Leave a reply