বগুড়ায় গণহত্যার আলোকচিত্র প্রদর্শনী

|

মেহেরুল সুজন, বগুড়া ব্যুরো:
১৯৭১ সালের ভয়াবহ নির্মমতার নীরব সাক্ষী হয়ে দাঁড়িয়ে থাকা ছবিগুলো খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে দেখছে নতুন প্রজন্মের শিশুরা। যে ঘটনার প্রায় চারদশক পরে জন্ম এসব শিশুর, সেসব শিশুদের মনেও ইতিহাসের নিষ্ঠুরতম গণহত্যার দৃশ্যগুলো কতোটা প্রভাব ফেলছে, তা আন্দাজ করা যায় কচিমুখগুলোর অভিব্যক্তিতেই। কখনো কোনো ছবি নিয়ে শিশুমনে কোনো জিজ্ঞাসা হাজির হলে তার জবাব দিচ্ছেন মুক্তিযোদ্ধা কিংবা শিক্ষকরা।

শিশুদের মহান মুক্তিযুদ্ধের প্রকৃত ইতিহাসের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিতে একাত্তরের গণহত্যার আলোকচিত্র নিয়ে এমন প্রদর্শনী শুরু হয়েছে বগুড়ায়। বগুড়া জেলা প্রশাসনের আয়োজনে ‘চেতনা অবিনাশী’ শীর্ষক এই আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন হয়েছে মঙ্গলবার দুপুরে শহরের শহীদ খোকন পৌর শিশু উদ্যানে।

দুপুরে উদ্বোধনের পর থেকেই এই আয়োজনে ভিড় করতে শুরু করেছে স্কুল পড়ুয়া শিশুরাসহ নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ। জেলা প্রশাসক নূরে আলম সিদ্দিকী জানান, শিশুদের মননে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা নিয়ে স্বচ্ছ ধারণা দিতে এই আয়োজন করা হয়েছে। প্রকৃত ইতিহাস জানার পাশাপাশি সেই সময়ের প্রতিচ্ছবি তাদের চোখের সামনে মেলে ধরতে পারলে দেশপ্রেমে সবসময় উদ্বুদ্ধ থাকতে পারবে আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্ম। তাই আগামী ২৬ মার্চ পর্যন্ত সাতদিন ধরে এই আয়োজন উন্মুক্ত থাকবে সবার জন্য।

প্রদর্শনীতে রাখা হয়েছে একাত্তরের গণহত্যার দুর্লভ ৫০টি আলোকচিত্র। জেলা প্রশাসক নূরে আলম সিদ্দিকী উদ্বোধন করেন এই প্রদর্শনীর। এসময় জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মমতাজ উদ্দিন, মুক্তিযোদ্ধা ডা. আরশাদ সায়ীদ, কথাসাহিত্যিক বজলুল করিম বাহার, বাংলাদেশ গ্রাম থিয়েটারের মহাসচিব তৌফিক হাসান ময়না, কথাসাহিত্যিক বজলুল করিম বাহার, বগুড়া রোটারিক ক্লাবের প্রেসিডেন্ট অধ্যক্ষ সাহাবুদ্দীন সৈকত, বগুড়া প্রেসক্লাবের সভাপতি প্রদীপ ভট্টাচার্য্য শংকর, সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল আলম নয়ন, শিশু সংগঠন বাবুই’য়ের পরিচালক রাকিব জুয়েল, মুক্তিযুদ্ধের গবেষক আকবর আহমেদসহ শহরের সংস্কৃতিজনরা উপস্থিত ছিলেন।









Leave a reply