পদত্যাগ করছেন ড্যারেন লেহম্যান?

|

ডন ব্র্যাডম্যানের যোগ্য উত্তরসূরি ধরা হচ্ছিলো যে স্টিভেন স্মিথকে, সেই গোল্ডেন বয়ই এখন দেশটির সবচেয়ে বড় খলনায়ক। বল টেম্পারিং ইস্যুতে টালমাটাল অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট। পৃষ্ঠপোষকদের থেকেও সুষ্ঠু তদন্তের জন্য দেয়া হচ্ছে চাপ, ৫০০ কোটি ডলারের আর্থিক ক্ষতির মুখে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

যে কারণেই সিরিজ চলাকালীনই প্রধান কোচের পদ থেকে সরে যেতে বাধ্য করা হয়েছে ড্যারেন লেহম্যানকে। অন্তত এমনটাই জানাচ্ছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো। স্টিভেন স্মিথ বল টেম্পারিংয়ের সাথে কোচের জড়িত থাকার কথা স্বীকার না করলেও, প্রশ্ন উঠেছে ম্যাচ চলাকালে হ্যান্ডসকম্বের সাথে ওয়াকিটকি দিয়ে লেহম্যানের যোগাযোগ নিয়ে।

অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ ও তার ডেপুটি ডেভিড ওয়ার্নারের সামনে আরো শাস্তি অপেক্ষা করছে। ন্যুনতম ১ বছরের জন্য ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ হতে পারেন তারা। সেই সাথে বোর্ডের সাথে নতুন চুক্তিতে প্রভাব আর বিদেশি লিগে তাদের খেলাতেও নিষেধাজ্ঞা দিতে পারে সিএ।

ভদ্রলোকের খেলা ক্রিকেটের বাজে এক দৃষ্টান্তই হয়ে থাকবে কেপটাউন টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার এই বল টেম্পারিং। ভবিষ্যত ক্রিকেটারদের এই কলঙ্ক থেকে দূরে রাখতে মানসিকতার পরিবর্তন করতে হবে বলে মত ক্রিকেটের আইনপ্রণেতা মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাব এমসিসির।

ন্যাক্কারজনক এই ঘটনার পর অস্ট্রেলিয়ার সাবেক ক্রিকেটার জেসন গিলেস্পি আর কোচ জন বুকাননের দাবি দৃষ্টান্ত শাস্তিই দেয়া হোক স্মিথ-লেহম্যান জুটিকে।









Leave a reply