সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারে ট্রাম্পের বিপক্ষে বিন সালমান

|

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সিরিয়া থেকে দ্রুত সেনা প্রত্যাহার চান। এর মধ্যে তিনি উপদেষ্টাদের এ বিষয়ে নির্দেশনা দিয়েছেন। হোয়াইট হাউসের দুজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা গতকাল শুক্রবার এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে।

এদিকে ট্রাম্পের এই অবস্থানের বিপক্ষে দাঁড়িয়েছেন সৌদি যুবরাজ বিন সালমান। তিনি বলেছেন, সিরিয়া থেকে এই মুহূর্তে মার্কিন সেনাদের প্রত্যাহার করা ঠিক হবে না। আমরা মনে করি দীর্ঘ মেয়াদে না হলেও অন্তত মধ্যমেয়াদে মার্কিনীদের সেখানে থাকা উচিত। যুবরাজের মতে, দেশটিতে ইরানের প্রভাব মোকাবিলায় যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক উপস্থিতির প্রয়োজন আছে।

শুক্রবার টাইম ম্যাগাজিনকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বিন সালমান এ মত ব্যক্ত করেন।

এদিকে রয়টার্সের খবরে জানানো হয়, ট্রাম্পের অবস্থান যুক্তরাষ্ট্রের অনেক কর্মকর্তার সঙ্গেও তার মতপার্থক্য তৈরি করেছে। ট্রাম্প প্রশাসনের এক কর্মকর্তা ওয়াল স্ট্রিট জার্নালকে এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ট্রাম্প তাঁর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে সিরিয়ায় পুনর্গঠন হিসেবে ২০ কোটি মার্কিন ডলারের তহবিল বন্ধ করার আদেশ দিয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত ২০ কোটি ডলার সিরিয়াকে দেওয়া হবে—সম্প্রতি একটি খবর পড়ে এ কথা জানতে পারেন ট্রাম্প। এরপরই তিনি ওই সিদ্ধান্ত নেন।

গত বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের ওহাইও অঙ্গরাজ্যে শিল্পকর্মীদের উদ্দেশে দেওয়া একটি বক্তৃতায় গৃহযুদ্ধকবলিত সিরিয়া থেকে ‘খুব শিগগির’ যুক্তরাষ্ট্রের সেনাদের প্রত্যাহারের কথা জানান ট্রাম্প। ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, মধ্যপ্রাচ্যের যুদ্ধে অংশ নিয়ে ওয়াশিংটনের সাত হাজার কোটি ডলার শুধু নষ্টই হয়েছে। তিনি বলেন, ‘সম্ভবত খুব শিগগির আমরা সিরিয়া থেকে বেরিয়ে আসছি। এখন অন্যদের দেশটির দেখভাল করা উচিত।’









Leave a reply