স্ত্রীর পরকীয়ার বলি রথীশ চন্দ্র

|

নিখোঁজের ৫ দিন পর রংপুরের তাজহাটের একটি নির্মাণাধীন ভবন থেকে আইনজীবী রথীশ চন্দ্র ভৌমিকের মরদেহ উদ্ধার করেছে র‌্যাব। পুলিশ বলছে, স্ত্রীর পরকীয়া সম্পর্কের জেরে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে রথীশ চন্দ্রকে।

পুলিশ জানায়, স্ত্রী স্নিগ্ধা ভৌমিককে আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে তাজহাটের রথীশ ভৌমিকের বাড়ির আধ কিলোমিটার দূরে মোল্লাপাড়ার একটি নির্মাণাধীন ভবনে অভিযান চালায় র‍্যাব-১৩’র একটি দল। রাতে ঐ ভবনের মেঝের মাটি খুঁড়ে একটি লাশ উদ্ধার হয়। এটি রথীশ ভৌমিকের মরদেহ বলে শনাক্ত করেন তাঁর ছোট ভাই সুশান্ত ভৌমিক। পরে মরদেহটি রংপুর মেডিকেলে পাঠানো হয়।

রথীশ ভৌমিকের লাশ উদ্ধারের সংবাদে মঙ্গলবার গভীর রাতেই ঘটনাস্থলে ছুটে আসে তার দীর্ঘদিনের সহকর্মীরা। এরকম জঘন্য হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় হতবাক তারা। দ্রুত জড়িতদের কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তার সহকর্মীরা। হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে স্ত্রী স্নিগ্ধা ভৌমিকসহ চারজনকে আটক করেছে পুলিশ।

গত শুক্রবার থেকে নিখোঁজ ছিলেন আইনজীবী রথীশ চন্দ্র ভৌমিক। তার সন্ধান চেয়ে মানববন্ধনসহ নানা কর্মসূচি পালন করে সহকর্মীসহ রংপুরের সর্বস্তরের মানুষ।









Leave a reply