কারাগারে গিয়ে ধূমপান ছাড়ার অঙ্গীকার করেছিলেন সালমান

|

হরিণ হত্যা মামলায় দু’দিনের কারাবাসের পর জামিন পেয়েছেন বলিউড সুপারস্টার সালমান খান, সে খবর সালমান ভক্তরা সবাই জানেন। কিন্তু এটা কি জানেন কারগারে বসে ধূমপান ছেড়ে দেয়ার অঙ্গীকার করেছিলেন ‘সাল্লুবাবা’? সালমানকে যে ওয়ার্ডে রাখা হয়েছিল, তার পাশের সেলে থাকা স্বঘোষিত ধর্মগুরু আশারাম বাপুকে তিনি এ কথা দেন।

বৃহস্পতিবার রাত থেকে শনিবার বিকাল পর্যন্ত যোধপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে ছিলেন এ অভিনেতা। ধর্ষণের দায়ে অভিযুক্ত এ ধর্মগুরুকে নাকি সালমান এ কথা দিয়েছিলেন। এমনকি কফি খাওয়াও অনেকটাই কমিয়ে দেবেন বলে জানিয়েছিলেন সালমান। কারাসূত্রে আরও জানা যায়, আশারাম বাপুর সান্নিধ্যে ভীষণ শান্ত ছিলেন সালমান।

আদালত থেকে জামিন পাওয়ার পর শনিবার সন্ধ্যায় যোধপুর থেকে মুম্বাইয়ের বাড়িতে ফিরে গেছেন বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় এ অভিনেতা। এখন তিনি নিজ বাড়িতেই অবস্থান করছেন। তবে, আদালতের নির্দেশ ছাড়া দেশের বাইরে যেতে পারবেন না তিনি। মে মাসের ৭ তারিখে আবার তাকে যোধপুর আদালতে হাজিরা দিতে হবে।

সালমান ছাড়া পেলেও ধর্ষণ মামলার আনসামি আশারাম বাপু এখনও যোধপুর জেলেই রয়েছেন। ২৫ এপ্রিল তার মামলার সাজা ঘোষণা করা হবে। গুজরাটের আশ্রমে এক কিশোরী শিষ্যকে ধর্ষণের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। দোষী প্রমাণ হলে তার ১০ বছর কারাদণ্ড হতে পারে। ২০১৩ সাল থেকে যোধপুর জেলেই বন্দি রয়েছেন আশারাম বাপু।

যমুনা অনলাইন: এটি









Leave a reply