পাসপোর্ট কর্মকর্তার ওপর হামলার ঘটনায় তদন্ত শুরু

|

বগুড়া ব্যুরো

বগুড়ায় পাসপোর্ট কর্মকর্তা সাহজাহান কবিরের ওপর হামলার ঘটনা তদন্তে ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদফতরের তদন্ত কমিটি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। কথা বলেছেন সংশ্লিষ্ট বেশ কয়েকজনের সঙ্গে। রোববার দুপুরে খুলনা, ঢাকা ও রাজশাহী থেকে তদন্ত কমিটির সদস্যরা বগুড়ায় আসেন।

খুলনা বিভাগীয় পাসপোর্ট ও ভিসা অফিসের পরিচালক আবু সাইদের নেতৃত্বে তিন সদস্যের এই দল তদন্ত কাজের অংশ হিসেবে রোববার ঘটনাস্থল শহরের কৈগাড়ী বন বিভাগের কার্যালয়ে যান। কথা বলেন কয়েকজনের সঙ্গে। আবু সাইদ জানান, রোববার বগুড়ায় এসেই তারা বিভিন্ন স্বাক্ষ্য-প্রমাণ সংগ্রহ করতে শুরু করেছেন। আরও কয়েকদিন বগুড়ায় অবস্থান করে তারা ওই হামলার বিভিন্ন দিক তুলে ধরবেন তাদের প্রতিবেদনে। তদন্তের স্বার্থে শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও পুলিশের তদন্ত কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্টদের সাথেও ঘটনা প্রসঙ্গে কথা বলা হবে বলে জানান এই কর্মকর্তা।

পাসপোর্ট ও ইমিগ্রেশন অধিদফতরের গঠন করা এই তদন্ত দলের অন্য দুজন সদস্য হলেন প্রধান কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক শাহাদাৎ হোসেন এবং রাজশাহী বিভাগীয় পাসপোর্ট ও ভিসা অফিসের সহকারী পরিচালক আবজাউল আলম।
গত ২৯ মার্চ দুপুরে পাসপোর্ট কর্মকর্তা সাহজাহান কবিরকে কৈগাড়ী এলাকায় রিকশা থেকে নামিয়ে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোস্তাকিম রহমানের ক্যাডার বাহিনী কুপিয়ে জখম করে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে নিয়ে যাওয়া হয় ঢাকায়। তিনি এখনো স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

ওই ঘটনায় ১১ জনের বিরুদ্ধে বগুড়া শাহজাহানপুর থানায় মামলা দায়েরের পর পুলিশ কাউন্সিলর মোস্তাকিমসহ ৫ জনকে গ্রেফতার করে। পরে মামলার তদন্তভার থানা থেকে গোয়েন্দা পুলিশের হাতে দেয়া হয়। তদন্ত কর্মকর্তারা মোস্তাকিমকে ৫ দিন ও তার ৪ সহযোগীকে ৪ দিন করে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। বর্তমানে এই ৫ আসামি কারাগারে রয়েছেন, বাকি ৬ আসামিকে এখনও গ্রেফতার করতে পারে নি পুলিশ।









Leave a reply