বিয়ের আসরে মাতলামি, বরকে পুলিশে সোপর্দ

|

মদ পান করে বিয়ে করতে এসেছিল পাত্র। বিয়ের আসরেই শুরু করেন মাতলামি। বিষয়টি টের পেয়ে যায় কনেপক্ষ। অবশেষে বেঁকে বসেন মেয়ের বাবা। সিদ্ধান্ত নেন মাতাল ছেলের সঙ্গে মেয়ের বিয়ে দেবেন না।

বৃহস্পতিবার পশ্চিমবঙ্গের বাঁকুড়া শহরে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, পুরুলিয়ার তেলকলপাড়ার যুবকের সঙ্গে বাঁকুড়া শহরের এক তরুণীর বিয়ে ঠিক হয়েছিল। পাত্রীটির বাবা রাজ্য সরকারের চতুর্থ শ্রেণির কর্মী। তার দুই মেয়ে, এক ছেলে। বড় মেয়েরই বিয়ে ঠিক হয়েছিল।

কনের আত্মীয়রা জানান, রাত প্রায় ২ টার দিকে বরযাত্রী আসে। কিছুক্ষণের মধ্যেই বোঝা যায়, পাত্র মাতাল। বাবা আর ভাই সামলানোর চেষ্টা করলে গলা উঁচিয়ে তাদের সঙ্গে ঝগড়া করছিল। খারাপ ব্যবহার করছিল মেয়ের বাড়ির লোকজন এবং পুরোহিতের সঙ্গে।

দুবাড়ির অনেকেই পাত্রকে বুঝিয়ে সুঝিয়ে শান্ত করার চেষ্টা করছিলেন। কিন্তু এসব কাণ্ড দেখার পরে মেয়ের বাবা বেঁকে বসেন।

এ ঘটনায় পাত্র, তার বাবা ও ভাইকে পুলিশে সোপর্দ করেছে কনেপক্ষ।

মেয়ের বাবার সাফ কথা, ‘মাতাল ছেলের সঙ্গে বিয়ে দেব না। আমার মেয়ে কলেজে পড়েছে। এ বার বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করাব। ওর পাত্রের অভাব হবে না।’









Leave a reply