দুই বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ, হাসপাতালে ভর্তি

|

স্টাফ রিপোর্টার, নাটোর

নাটোরের বড়াইগ্রামে দুই বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে শিশুটির চাচাতো ভাই স্বাধীন ও তার সহযোগী হেলালের বিরুদ্ধে। নির্যাতনের শিকার শিশুটি বর্তমানে নাটোর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তবে এ ঘটনায় শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত কেউ থানায় অভিযোগ দেয়নি।

বৃহস্পতিবার উপজেলার ইকোরী রহমতপুর বাজার এলাকায় এই ঘটনাটি ঘটে। ওইদিন রাত ১২টার দিকে শিশুটিকে নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অভিযুক্ত স্বাধীন শাহাদত হোসেনের ছেলে ও হেলাল একই এলাকার সাইদুর রহমানের ছেলে।

শিশুটির বাবা জানান, বৃহস্পতিবার বিকালে তার চাচাতো ভাইয়ের বাড়ির উঠানে তার মেয়ে খেলছিলো। এসময় স্বাধীন ও তার সহযোগী হেলাল বাড়ীতে এসে শিশুটিকে একা পেয়ে ঘরের ভেতরে ডেকে নিয়ে যায়। কিছুক্ষণ পরে স্বাধীন ঘর থেকে বের হলে শিশুটি চিৎকার শুরু করে। ভয়ে স্বাধীন ও হেলাল বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। চিৎকার শুনে শিশুটির মা ওই ঘরে গিয়ে আহত অবস্থায় উদ্ধার করেন।

প্রাথমিকভাবে শিশুটিকে বাড়িতে রাখলেও রাতে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে মধ্যরাতে নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

অভিযুক্ত স্বাধীনের বাবা শাহাদাৎ হোসেন জানান, তিনি ঘটনাটি শোনার পর শিশুটিকে দেখতে হাসপাতালে যান। এ ঘটনা জড়িত থাকলে ছেলের বিচার চেয়েছেন তিনি।

অপর অভিযুক্ত হেলালের বাবা সাইদুর রহমান জানান, বিষয়টি নিয়ে এলাকার মুরুব্বিদের কাছে বিচার চাওয়া হবে। তারা যে বিচার করবেন তা মেনে নেবেন তিনি। ছোট শিশুকে এমন বর্বর নির্যাতনকারীদের ক্ষমা করা উচিত হবেনা বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

শিশুটির মা বলেন, পুলিশ বা অন্য কারো কাছে যাওয়ার সামর্থ্য আমাদের নেই। এ বিষয়ে নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক আবু সাঈদ সরকার জানান, তিনি সকালে হাসপাতালে ডিউটিতে যোগ দিয়ে জানতে পারেন রাতে দুই বছরের ওই শিশুটিকে ভর্তি করা হয়েছে। পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে অভিযোগের বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যাবে।

বড়াইগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) সৈকত হাসানের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এমন কোন অভিযোগ তারা পাননি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।









Leave a reply