বক্তৃতার সময় মঞ্চে অসুস্থ হয়ে পড়লেন এলজিইডি মন্ত্রী

|

স্টাফ রিপোর্টার, মানিকগঞ্জ:

মঞ্চে তখন তিনি বক্তব্য রাখছিলেন নির্বাচন ও রাজনৈতিক প্রসঙ্গে। নেতাকর্মীরা করতালি আর শ্লোগান দিচ্ছিলেন। এমন সময় হঠাৎ বক্তব্য থামিয়ে কয়েক মিনিট চোখ বন্ধ করে রাখেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী খন্দকার মোশারফ হোসেন। এরপর নেতাকর্মীরা তাকে ধরে চেয়ারে বসিয়ে দেন। দ্রুত তার মাথায় বাতাস করা ও পানি খাওয়ানো হয়।

আজ শনিবার দুপুরে মানিকগঞ্জের ঘিওরে এক জনভায় বক্তৃতাকালে এ ঘটনা ঘটে। এসময় তার সঙ্গে এ্যাম্বুলেন্সে থাকা ব্যক্তিগত চিকিৎসকরা ছুটে আসেন। তাৎক্ষণিকভাবে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন।

তবে ১০ মিনিট পর মন্ত্রী আবারো মাইকের সামনে এসে সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে বক্তব্য শেষ করেন।

শিবালয় উপজেলার ফলসাটিয়ায় বসুন্ধরা অক্সিজেন রিসোর্টে মন্ত্রীর মধ্যহৃভোজে অংশ নেয়ার কথা থাকলেও চিকিৎসকদের পরামর্শে মঞ্চ থেকে নেমেই তিনি ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন।

এর আগে তার বক্তব্যে মন্ত্রী বলেন, বিএনপির পায়ের তলায় এখন মাটি নেই। তাই নির্বাচনকে ভয় পায়। এজন্যই খালেদা জিয়ার মতো দাগী আসামির মুক্তি না হলে নির্বাচনে না যাওয়ার কথা বলছে তারা।

তিনি আরো বলেন, অক্টোবরে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করবে নির্বাচন কমিশন। সেই হিসাবে ডিসেম্বরের মাঝামাঝি জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আওয়ামী লীগও চায় বিএনপি নেত্রী মুক্ত হয়ে নির্বাচনী মাঠে আসুক।

কিন্তু খালেদার মতো দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিকে মুক্ত করার ক্ষমতা আওয়ামী লীগ তথা সরকারের নেই। তাই আন্দোলন নয় তাকে মুক্ত করতে হলে আইনি রাস্তায়ই হাটতে হবে। তাকে মুক্ত করা ছাড়া নির্বাচনে যাবো না এমন ঘোষণা বিএনপির মামা বাড়ির আবদারের মাতোই।

মানিকগঞ্জ জেলা পরিষদের সভাপতি ও জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি অ্যাডভোকেট গোলাম মহিউদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সংসদ সদস্য এ.এম নাঈমুর রহমান দুর্জয়, জেলা প্রশাসক নাজমুছ সাদাত সেলিম, পুলিশ সুপার রিফাত মো:শামীম, জেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম, পৌর মেয়র গাজী কামরুল হুদা সেলিম প্রমূখ।

ঘিওরে জেলা পরিষদের বানিজ্যিক ভবন,রাস্তা-ব্রীজসহ কয়েকটি উন্নয়নকাজের উদ্বোধন করেন মন্ত্রী।









Leave a reply