গুপ্তধন দেয়ার লোভ দেখিয়ে মা-মেয়ে ধর্ষণ

|

গাইবান্ধা প্রতিনিধি
গুপ্তধন দেয়ার লোভ দেখিয়ে জামালপুর জেলা থেকে মা-মেয়েকে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে ডেকে এনে ধর্ষণের অভিযোগে জ্বীনের বাদশা প্রতারক চক্রের সদস্যদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

এ ঘটনায় শনিবার (১২ মে) গভীর রাতে ধর্ষণের শিকার মা বাদি হয়ে অজ্ঞাত পরিচয় ৬-৭ জনের বিরুদ্ধে গোবিন্দগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

এরআগে, শুক্রবার (১১ মে) রাতে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার করতোয়া নদীর বালু চরের নির্জন এলাকায় তাদের ধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহ মোটরসাইকেল চালক সাদা মিয়াকে (৩২) আটক করেছে পুলিশ। আটক সাদা মিয়া গোবিন্দগঞ্জের সমসপাড়া গ্রামের মোহশীন আলীর ছেলে।

লাইলী বেগম মামলা উল্লেখ করেন, জিনের বাদশা পরিচয় দিয়ে গুপ্তধন দেয়ার কথা বলে তার কাছ থেকে বিভিন্ন সময় বিকাশের মাধ্যমে ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় চক্রের সদস্যরা। এছাড়া তাদের ডেকে এনে কাছে থাকা স্বর্ণলংকার ও নগদ ২০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয় তারা। পরে নদীর চরে নিয়ে গিয়ে তাকে ও তার সাথে থাকা মেয়েকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে চক্রের সদস্যরা।

গোবিন্দগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মজিবুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় মামলা হলে ধর্ষণের শিকার মা ও মেয়ের ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য গাইবান্ধা আধুনিক সদর হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহভাজন আসামি সাদাকে আটক করা হয়েছে। এছাড়া মামলার আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।









Leave a reply