রাজপথ অবরোধ করবে না আন্দোলনকারীরা, ধর্মঘট চলবে

|

প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাস পেয়েছে উল্লেখ করে কোটা আন্দোলন নিয়ে অবস্থান কমর্সূচি প্রত্যাহার করেছেন আন্দোলনকারীরা। তবে এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি না হওয়া পযর্ন্ত ক্লাস পরীক্ষা বর্জন থাকবে বলে জানান ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নেতারা। এর আগে রাজধানীর শাহাবাগে সড়ক অবরোধ করে দিনব্যাপী বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করে আন্দোলনকারীরা। যার কারণে চারদিকে তৈরি হয় দীর্ঘ যানজট। ভোগান্তিতে পড়েন সাধারণ মানুষ। রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে একই দাবিতে আন্দোলন করে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী ক্লাস-পরীক্ষা বজর্ন করে দিনব্যাপী শাহাবাগে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে আন্দোলনকারীরা। প্রায় সাড়ে আট ঘণ্টা পর কারো নাম উল্লেখ না করে কোনো এক মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর আশ্বাসে কর্মসূচি তুলে নেয়ার ঘোষণা দেয় নেতারা ।

সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল হক জানান, প্রজ্ঞাপন জারি না হওয়া পর্যন্ত আর রাজপথে অবস্থান নেয়া হবে না। কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জনের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে কর্মসূচি।

এর আগে, সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে সমবেত হয় আন্দোলনকারীরা। সেখান থেকে মিছিল নিয়ে যান কলাভবনের সামনে। গেট বন্ধ করে কিছুক্ষণ অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হয়। তারপর কাজর্ন হল হয়ে অবস্থান নেয় শাহবাগে। এসময় তারা জানায়, কোটা বাতিল নিয়ে প্রহসন করছে সরকার।

এদিকে সোমবার মন্ত্রীপরিষদ সচিব শফিউল আলম বলেছেন, কোটা সংস্কারের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন আছে। যেকোনো সময় প্রজ্ঞাপন জারি হবে। একই কথা বলেন, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। তিনি আন্দোলকারীদের ধৈর্য ধারণ ও সতর্কতা বজায় রাখতে বলেন। প্রদাধমন্ত্রীর ওপর আস্থা রেখে ঘোষণা বাস্তবায়নের জন্য অপেক্ষা করতে বলেন।

যমুনা অনলাইন: টিএফ









Leave a reply